মেইন ম্যেনু

চিরচেনা মশলা হলুদের ৬ স্বাস্থ্যগুণ

রান্নার কাজে ব্যবহৃত হয় যে সকল মশলা তদের মধ্যে হলুদ অন্যতম। হলুদ ছাড়া রান্না কল্পনা করা যায় না। এই হলুদের স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে আপনি জানেন কি? American Chemical Society এর প্রকাশিত জার্নালে পাওয়া যায় হলুদে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেণ্ট, অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিকারসিনোজেনিক, অ্যান্টি ইনফ্লামেটরী উপদান। এছাড়াও এতে রয়েছে ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, ভিটামিন কে, ক্যালসিয়াম,কপার, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন ইত্যাদি।

১। ক্যান্সার প্রতিরোধ করে

হলুদ প্রস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধ করে থাকে। এমনকি এটি ক্যান্সারের কোষ নষ্ট করে দিয়ে থাকে। অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যে হলুদে থাকা উপাদানগুলো টিউমারের বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে।

২। ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করে

২০১২ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে যে যাদের ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে হলুদ তাদের টাইপ টু ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা অনেকখানি কমিয়ে দিয়ে থাকে।

৩। কোলেস্টেরল মাত্রা নিয়ন্ত্রণ রাখে

খাবারে নিয়মিত হলুদ ব্যবহার কোলেস্টেরল মাত্রা নিয়ন্ত্রণ রাখে। কোলেস্টেরল থেকে অনেক রোগের সূচনা হতে পারে। তাই এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিত।

৪। জয়েন্ট পেইন বা অস্থিমজ্জার ব্যথা প্রতিরোধ করতে

হলুদের অ্যান্টি ইনফ্লামেটরী উপাদান অস্থিমজ্জার ব্যথা কমাতে সাহায্য করে থাকে। অস্টিওআর্থারাইটিস রোগীদের জন্য হলুদের নির্যাস ঔষধের মত কাজ করে থাকে।

৫। ওজন হ্রাস করতে

হলুদ আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করবে। হলুদের উপাদান পেটের মেদ কাটতে সাহায্য করে থাকে। যারা দ্রুত ওজন কমাতে চান তারা প্রতিদিন খাবারের সাথে এক চামচ করে হলুদ খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন কিছুদিনের মধ্যে আপনার ওজন কমে গেছে।

৬। হজমশক্তি বৃদ্ধিতে

হজমশক্তি বৃদ্ধিতে হলুদ অনেক কার্যকরী। হলুদ পেট ফাঁপা, গ্যাসে সমস্যা রোধ করে হজমশক্তি বৃদ্ধি করে থাকে। হজমে সমস্যা হলে রান্না ছাড়া শুধু হলুদ খেলে উপকার পাবেন। তবে হ্যাঁ যারা গলব্লাডারের কোন রোগে ভুগছেন তারা সরাসরি হলুদ গ্রহণ থেকে বিরত থাকুন। এটি আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

হলুদ আপনার লিভারকে সুস্থ রাখে। হলুদের প্যাক ব্যবহারে আপনার ত্বক হয়ে উঠে উজ্জ্বল এবং সুন্দর। কিন্তু অতিরিক্ত হলুদ গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকবেন।