মেইন ম্যেনু

চুরি করে ৭ প্রেমিকাকে উপহার

একদিকে বিলাসবহুল জীবনযাপনে অভ্যস্ত, অন্যদিকে ৭ প্রেমিকার আবদার। প্রেমিকাদের চাহিদা মেটাতে শেষ পর্যন্ত চুরির রাস্তা বেছে নেন ওমপ্রকাশ রঙ্গনাথ খান্ডাভে (২৭)। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি তার।

উত্তরপ্রদেশের মানকপুর শহরের কাছে বুলধনা জেলার বোরখেদ গ্রাম থেকে সম্প্রতি ওমপ্রকাশকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মোট ৯টি চুরির মামলা দায়ের হয়েছে। ধৃতের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ১৭টি মোবাইল ফোন এবং নগদ সাড়ে চার লাখ টাকা।

পুলিশ জানিয়েছে, বিলাসবহুল জীবনযাপনের স্বপ্ন পূরণের জন্যই চুরিবিদ্যায় হাত পাকায় ওমপ্রকাশ। তার মোট ৭ জন প্রেমিকা রয়েছে। তাদের খুশি করতে নিত্যনতুন উপহার দিত ওমপ্রকাশ। যাতায়াতের জন্য ট্রেনের বাতানুকূল কামরা ব্যবহারকরতো।

ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ, ওয়ার্ধা, ভূসাওয়াল ও পুনে হয়ে কয়েকদিন আগে বাড়ির কাছে মানকপুরের কয়েকটি বাড়িতেও চুরি করে ওমপ্রকাশ। তাকে হাতেনাতে পাকড়াও করতে সম্প্রতি এসিপি সোমনাথ ওয়াঘচৌরের নেতৃত্বে ফাঁদ পাতে পুলিশের তদন্তকারী দল।

তাতেই ধরা খায় পাকা চোর। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। একইসঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওয়ার্ধার এক গয়নার দোকানদারকে, যার কাছে লুটের মাল বিক্রি করতো ওমপ্রকাশ।

জানা গেছে, ওমপ্রকাশের এক প্রেমিকা নাগপুরের বাসিন্দা দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। ফেসবুকে তার সঙ্গে আলাপ হয়। তাকেও দামি উপহার দিয়েছিল ওমপ্রকাশ। ওই কিশোরীকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।