মেইন ম্যেনু

চুল সোজা করার ঘরোয়া ও প্রাকৃতিক উপায়

প্রত্যেক নারী নিজের চুলের প্রতি সবচেয়ে বেশি যত্নশীল হয়ে থাকে। বেশিরভাগ নারী সিল্কি ও সোজা চুল পছন্দ করে। তবে চুল সোজা করার জন্য অনেকে আর্টিফিশিয়াল সাহায্য নিয়ে থাকেন। কিন্তু ঘরে বসে প্রাকৃতিক উপাদানের মাধ্যমে খুব সহজে চুল সোজা করা যায়। নিম্নে সে উপায়গুলো বর্ণনা করা হল-

১. ডিমের কুসুম ও নারিকেল তেল:
এক টেবিল চামচ নারিকেলের তেলের সাথে একটি ডিমের কুসুম ভালভাবে মিশিয়ে নিন। তারপর, আপনার চুলের আগা থেকে গোঁড়া পর্যন্ত খুব ভালভাবে এই মিশ্রণ লাগিয়ে মালিশ করুন। সপ্তাহে দুইবার এভাবে ব্যবহার করতে থাকুন। এতে আপনার চুল স্বাস্থ্যকর ও সোজা হয়ে যাবে।

২. কাঁচা দুধ:
আধা কাপ কাঁচা দুধের সাথে আধা কাপ পানি মিশিয়ে নিন। এবার, একটি স্প্রে বোতলে এটি রাখেন। তারপর আপনার চুল ভালভাবে আঁচড়িয়ে নিন। এবার, সেই মিশ্রণ দিয়ে আপনার চুলে ভালভাবে স্প্রে করুন। এভাবে, ৩০ মিনিট রেখে দিন। এখন, ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভাল করে চুল ধুয়ে ফেলুন। তারপর চুল শুকিয়ে ফেলুন। এভাবে, সপ্তাহে তিনবার আপনার চুলের যত্ন নিন। এতে আপনার চুল উজ্জ্বল ও সোজা হবে।

৩. মুলতানি মাটি, ডিমের সাদা অংশ ও চালের গুঁড়া:

এক কাপ মুলতানি মাটির সাথে প্রথমে ডিমের সাদা অংশ খুব ভালভাবে মিশিয়ে নিন। তারপর এতে ২ চা চামচ চালের গুঁড়া মিশিয়ে নিন। এতে পানি মিশিয়ে নিন এবং খুব ভালভাবে পেস্ট তৈরি করে নিন। এটি আপনার চুলে ভালভাবে মিশিয়ে নিন এবং ৩০ মিনিটের জন্য চুলে লাগিয়ে রাখুন। এবার আবার আপনার চুল আঁচড়িয়ে নিন। আবার সেই পেস্ট লাগিয়ে রাখুন পরবর্তী দুই ঘণ্টার জন্য। তারপর, ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তারপর, শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।

৪. কলা, মধু, দই ও জলপাইয়ের তেল:

কলার তৈরি মাস্ক খুব সহজে চুল সিল্কি ও সোজা করে তোলে। দুইটি পাকা কলা ভালভাবে থেতলিয়ে নিন এবং এর সাথে দুই টেবিল চামচ করে মধু, দই ও তেল মিশিয়ে নিন। এবার, এই পেস্ট আপনার চুলে লাগিয়ে তোয়ালে দিয়ে পেঁচিয়ে রাখুন বা শাওয়ার ক্যাপ লাগিয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা অপেক্ষা করুন এবং পড়ে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার চুল স্মুথ ও সিল্কি হবে।

৫. অ্যালোভেরা ও জলপাইয়ের তেল:

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারীর দুইটি পাতা থেকে জেল আলাদা করে নিন এবং এর সাথে কুসুম গরম করে নারিকেলের তেল বা জলপাইয়ের তেল মিশিয়ে নিন। এবার, এই মিশ্রণ আপনার চুলে লাগিয়ে রাখুন। তারপর আধা ঘণ্টা পর চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনদিন এই মিশ্রণের ব্যবহার করুন। এতে আপনার চুল কোন মেশিনের ঝামেলা ছাড়াই সোজা হয়ে যাবে।