মেইন ম্যেনু

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গার মোমিনপুর ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে থাকায় মারপিট

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার মোমিনপুর ইউপি নির্বাচনে জয়লাভের পর আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দারের অনুসারীরা পরাজিত নৌকা প্রতীকের লোকজনকে ধরে মারধোর করছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার বেলা ১২টায় চুয়াডাঙ্গার সাংবাদিক সমিতি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মোমিনপুর ইউনিয়নের নীলমনিগঞ্জ গ্রামের রেজাউল আহামদ। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ৪ এপ্রিল সন্ধ্যায় নীলমণিগঞ্জ গ্রামে তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। তিনি নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে ছিলেন এই অভিযোগে তাকে মারপিট করে তার বাম হাত ভেঙে দেওয়া হয়। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী এবং নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থী গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দারের লোকজন এ হামলা করে।

আহত রেজাউল আহামদ লিখিত বক্তব্যে আরো জানান, নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দারের অনুসারী সরিষাডাঙ্গা গ্রামের মোহাম্মদ রতন, মোহাম্মদ মতলেব ও মোমিনপুর গ্রামের মোহাম্মদ চান্দু তার ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলা দায়ের করলেও পুলিশ আসামীদের আটক করছে না।

রেজাউল আহামদ আরো জানান, চিকিৎসাধীন থাকার কারণে সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করতেও তার দেরি হয়েছে।

এ সংবাদ সম্মেলন প্রসঙ্গে নির্বাচিত চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার বলেন, তার লোকজন রেজাউল আহামদকে কখনোই মারধোর করেনি। তিনি মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

মারপিটের মামলায় আসামি গ্রেপ্তার না করার অভিযোগ প্রসঙ্গে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, নিয়মানুযায়ী মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। এ ব্যাপারে একজন এস আইকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে। তিনি অবশ্যই প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ নেবেন।