মেইন ম্যেনু

চোরাগোপ্তা হামলায় বিএনপি-জামায়াত জড়িত

দেশের বিভিন্ন স্থানে চোরাগোপ্তা যে হামলা হচ্ছে এর সঙ্গে বিএনপি ও জামায়াত জড়িত বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

শুক্রবার বিকালে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে হানিফ এমন দাবি করেন।

রাজশাহীর বাঘমারায় কাদিয়ানি মসজিদে হামলার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে হানিফ সাংবাদিকদের বলেন, সব হামলার যোগসূত্র অভিন্ন। দেশে যখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং এ রায় কার্যকর হচ্ছে তখন তা বানচালের চেষ্টায় লিপ্ত বিএনপি-জামায়াত। এজন্য তারা এই চোরাগোপ্তা হামলা চালাচ্ছে।

হানিফ বলেন, এই চোরাগোপ্তা হামলা আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে কোনো প্রভাব পড়বে না। নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে। সরকার ও ইসি এ ব্যাপারে বদ্ধ পরিকর।

নির্বাচনে বিএনপির সেনাবাহিনী মোতায়েন দাবির সমালোচনা করে হানিফ বলেন, এর দ্বারা তারা একটি সুসংহত বাহিনীকে উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তারা পুলিশ ও বিজিবির প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করছে। জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির জন্যই বিএনপি এই দাবি জানিয়েছে বলে মনে করেন হানিফ।

তিনি বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন কি তারা কোনো নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছিল? তারা যে পাঁচ সিটি নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছে সেখানে কি সেনাবাহিনী ছিল? তাহলে এখন কেন সেনা মোতায়েনের দাবি?

হানিফ অভিযোগ করেন, বিএনপির প্রার্থীদের সঙ্গে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা প্রচারকাজে অংশ নিচ্ছে। তিনি এ ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সুদৃষ্টি কামনা করেন।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, নির্বাচন কমিশন বিএনপির ওপর অতি মাত্রায় সদয় আর আমাদের ওপর অতি মাত্রায় কঠোরতা করছে। তিনি নির্বাচন কমিশনকে দায়িত্ব পালনে আরও সচেষ্ট হওয়ার আহ্বান জানান।