মেইন ম্যেনু

চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ব্যালট ছাপা শুরু

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের ব্যালট পেপার ছাপানো শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। চেয়ারম্যান পদে সাদা ব্যালট পেপারে প্রার্থীর নাম ও প্রতীক থাকছে। প্রথম ধাপের প্রার্থিতা চূড়ান্ত হওয়ায় নির্বাচন কমিশন ব্যালট পেপার ছাপানো শুরু করে।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে ভোট হচ্ছে ইউপিতে। আগামী ২২ মার্চ ভোটগ্রহনের এ তফসিল ঘোষণা করেছে ইসি। এতে চেয়ারম্যান পদে সাদা, সদস্য পদে সবুজ ও সংরক্ষিত সদস্য পদে গোলাপী রঙের ব্যালট পেপার ব্যবহৃত হবে।

চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীর নাম ও প্রতীক থাকলেও সাধারন সদস্য পদে ১২টি, সংরক্ষিত সদস্য পদে ১০টি করে প্রতীক থাকবে ব্যালটে।

মুদ্রণ কাজ তদারকিতে থাকা ইসির উপ সচিব রকিব উদ্দিন মন্ডল বলেন, সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদের ব্যালট পেপার ইতোমধ্যে ছাপানোর কাজ শেষ হয়েছে। চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর তালিকা চূড়ান্ত হওয়ায় নাম ও প্রতীকসহ ব্যালট পেপার ছাপানোর কাজ চলছে।

বুধবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ছিল। বৃহস্পতিবার প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের। শুক্রবার সংশ্লিষ্ট ইউপি থেকে প্রার্থীর নাম ও প্রতীকসহ তালিকা ইসি সচিবালয়ে পাঠানো শুরু করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা।

তিনি বলেন, নাম-প্রতীকের তালিকা পাওয়া সাপেক্ষে পর্য‌্যায়ক্রমে ভোটার সংখ্যার সমান সংখ্যক ব্যালট পেপার ছাপানো চলছে। ১৭ মার্চের মধ্যে তা শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে। যাতে করে জেলা পর্যায়ে পাঠানো সম্ভব হয় এবং ভোটের আগের দিন কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হবে।

ইসির মুদ্রণ শাখার সহকারি সচিব সৈয়দ গোলাম রাশেদ জানান, রাষ্ট্রায়ত্ত বিজি প্রেস, সিকিউরিটি প্রিন্টিং প্রেস, গভর্নমেন্ট প্রিন্টিং প্রেস এবং বিএমটিএফ ও আর্মি প্রিন্টিং প্রেসে ব্যালট পেপার ছাপানোর কাজ চলছে। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ইউপিগুলো বাদ দিয়ে ভোটের জন্য বাকিগুলোর চেয়ারম্যান পদে ব্যালট ছাপানো হবে। সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১২ জনের বেশি প্রার্থী রয়েছে এমন ইউপিতে অতিরিক্ত প্রতীক দিয়ে ব্যালট পেপার ছাপাতে হবে। এজন্যে তালিকা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ব্যালট পেপার ছাপাতে হচ্ছে।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, ছয় ধাপের ভোটে প্রায় ৮ কোটি ভোটারের জন্য ২৪ কোটি ব্যালট পেপার ছাপানো লাগতে পারে। প্রতি ধাপে গড়ে ১ কোটি ৩৩ লাখ ভোটারের বিপরীতে তিনটি পদে ৪ কোটি ব্যালট পেপার প্রয়োজন পড়বে।

প্রথম ধাপে ৭৩৪ ইউপি’র ভোট হবে ২২ মার্চ। এতে তিনটি পদে ৩০ হাজারেরও বেশি প্রার্থী রয়েছেন। দ্বিতীয় ধাপের সাড়ে ছয়শ’ ইউপিতে তিন হাজার চেয়ারম্যানসহ সাধারণ ও সংরক্ষিত পদের সদস্য নিয়ে ৩০ হাজারেরও বেশি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। ভোট হবে ৩১ মার্চ।

পরবর্তী চার ধাপে এখনো মনোনয়নপত্র জমা পড়ে নি। এ চার ধাপে ২৩ এপ্রিল ৭১১টি, ৭ মে ৭২৮টি, ২৮ মে ৭১৪টি এবং ৪ জুন ৬৬০টি ইউপিতে ভোট হবে।