মেইন ম্যেনু

চোখ লাল হয়ে গেলে, আপনার করণীয়

মাঝে মাঝে চোখ চুলকে কিংবা ব্যাথার কারণে চোখে লাল হ্যে রক্ত জমে যায়। এমনকি অনেক সময় কোন কারণ ছাড়াই এমনটা হয়। আবার চোখে কিছু ঢুকে গেলেও চোখ লাল হয়। এটি তখন চটু জলদি সারানো দরকার।

আসুন জেনে নেই চোখ লাল হয়ে গেলে কিভাবে ঠিক করবেন –

– ফিটকারি আর তেঁতুল পাতা সম ভাগে নিয়ে পিষে নিন। এই মিশ্রণের পুলটিস তৈরি করে নিয়ে গরম করে চোখে সেঁক দিলে চোখের লালচে ভাব কেটে যায়। তবে সেঁক দিতে হবে হালকা গরম।

– ৪/৫ বার করলে চোখের লাল ভাব চলে যায়। এতে চোখ ঠাণ্ডা হয়।

– পাতার রস ও দুধ এক সঙ্গে মিশিয়ে একটা কাঁসার থালাতে নিয়ে কাঁসা বা তামার বাটি দিয়ে ঘুটে নিয়ে চোখের পলকে এবং আশেপাশে লাগালে চোখের লাল ভাব কেটে যায়। এছাড়া চোখ জ্বালা, চোখ দিয়ে জল পড়া ইত্যাদির নিরাময় হয়।

– পুলটিস তৈরি করে রাতে শোয়ার সময় চোখে বেঁধে দিলেও পীড়িত চোখ শান্ত হয়। চোখের লালচে ভাব ফোলা, ব্যথা-বেদনা সঙ্গে সঙ্গে ভালো হয়ে যায়।

– টুকরোর ওপর আফিম ও ফিটকারি ছিটিয়ে তার পুলটিস তৈরি করে চোখের ওপর রাখলে চোখের লাল ভাব কেটে যায়। এতে চোখের অন্যান্য পীড়াও প্রশমিত হয়।

সতর্কতাঃ
এক বছরের পুরনো চালের ভাত, গমের আটা, যবের ছাতু, মুগ, গুড় টাটকা ও বিশুদ্ধ ঘি, আনারাস, কমলা, চৌলাই, পটল এবং বিভিন্ন শাক-সব্জি বেশি করে খেতে হবে।

এতে চোখ ভালো থাকে। চোখ পরিষ্কার রাখার দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে। মনে রাখতে হবে এটি একটি সংক্রামক রোগ তাই রোগীর ব্যবহৃত জিনিস থেকে সাবধানে থাকতে হবে।

রোগীর সংস্পর্শে আসা যাবে না। অত্যধিক রোদ বা আলো থেকে বাঁচতে চোখে রোদ-চশমা ব্যবহার করতে হবে। ঠাণ্ডা জলে বার বার চোখ ধুতে হবে।