মেইন ম্যেনু

ছাত্রীকে ইট দিয়ে মেরে আহত করলো শিক্ষিকা

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার “ফাতেমাতো জোহুরা মহিলা মাদ্রাসার” প্রধান শিক্ষিকা জরিনা বেগম মিথ্যা অভিযোগে ছাত্রী আয়েশা আক্তার(১৫) কে লাঠি ও ইট দিয়ে মেরে গুরুতর আহত করে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭ টার দিকে মাঝি বাড়ি এলাকায় এঘটনা ঘঠে। এর আগে দিন বিকেলে ওই প্রধান শিক্ষিকা আয়েশাকে ডেকে বেত্রাঘাত ও গলায় টিপে মারধর করে।

আহত আয়েশার মা হাজেরা বেগম জানান, গতকাল বিকেলে আমার মেয়েকে মারধর করে। কিন্তু মেয়ে আমাদের জানায়নি। আজ সকালে মাদ্রাসায় গেলে ওই প্রধান শিক্ষিকা আবার মারধর করে এবং ইটদিয়ে হাতে-পা ছেচা দেয়। তিনি আরো জানান, শিক্ষিকার ব্যাগ থেকে ৫০০ টাকা চুরির মিথ্যা অভিযোগ এনে আমার মেয়েকে মারধর করে।

টঙ্গীবাড়ি উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক বাচ্চু মাঝি জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে অমি মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষিকাকে জিজ্ঞেস করেছি। এ বিষয়ে সামাজিক ভাবে বিচারের ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।

মাদ্রাসার শিক্ষিকা জরিনা বেগমের সাথে মোবাই ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে মোবাই বন্ধ পাওয়া যায়।