মেইন ম্যেনু

ছিটমহলে এডিপি প্রকল্পের ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ : এলাকা পরিদর্শনে ইউএনও

হামিদা আক্তার বারী,ডিমলা (নীলফামারী) থেকে: নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের সদ্যবিলুপ্ত নগর জিগাবাড়ী, বড় খানকি, ছোট খানকি ও জিগাবাড়ী ছিটমহলের জন্য এডিপি প্রকল্পের প্রায় ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে।

এ বরাদ্দকৃত অর্থ সদ্যবিলুপ্ত ছিটমহল গুলিতে কিভাবে বাস্তাবায়ন করা যায়? কি কি খাদে বরাদ্দকৃত অর্থ বাস্তবায়ন করা হবে তা নির্ধারনের জন্য ডিমলা উপজেলা নিার্বহী কর্মকর্তা মো: রেজাউল করিম শনিবার সকালে বিলুপ্ত নগর জিগাবাড়ী ছিটমহল পরিদর্শনে আসেন।

এ সময় তিনি এলাকাবাসাীর সাথে মতবিনিময় সভা করেন। সভায় টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম শাহিনের সভাপতিত্বে মত বিনমিয় সভায় এলাকাবাসী বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় চাহিদার কথা তুলে ধরেন।

তারা বলেন, বিলুপ্ত ছিটমহলে অতীব জরুরী প্রয়োজনীয় চাহিদা হলো বিশুদ্ধ পানির অভাব অর্থাৎ নলকুবের প্রয়োজন, স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানার প্রয়োজন, এলাকাবাসীর মধ্যে বেকারত্ব ঘুঁচানোর জন্য প্রয়োজন কুঠিরশিল্প, সেলাইমেশিন, পুকুরের মাছ চাষ, রাস্তাঘাট মেরামত, স্কুল- কলেজ নির্মাণ ইত্যাদি।

এ সময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, বিলুপ্ত ছিটমহল বাসীর চাহিদা অনুযায়ী এবং এলকাবাসীর মতামতকে প্রাধান্য দিয়েই প্রকল্পগুলি হাতে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করা হবে।

চাহদার ভিক্তিতে প্রকল্প গুলি হাতে নিয়ে তা সঠিকভাবে তদারকির মাধ্যমে বাস্তবায়ন করা হবে বলেও তিনি উপস্থিত সকলের উদ্যেশ্যে বলেন। উল্লেখ্য, পরিদর্শকালে ইউএনও’র সফর সঙ্গী হিসেবে ছিলেন সার্ভেয়ার রাব্বিল আল আমিন,ইউপি মেম্বারসহ অনেকেই।