মেইন ম্যেনু

ছেলেটি ভার্জিন কিনা যেভাবে বুঝে নেয় মেয়েরা

সাধারণত ভার্জিন ছেলে চেনার কোন লক্ষণ নেই। একটি ছেলে বিয়ের আগে যতই সেক্স করুক না কেন, সেই ছেলে ভার্জিন কিনা তা বোঝার উপায় নেই। তাই সমাজে কখনোই ছেলেদের ভার্জিনিটি নিয়ে কোন প্রশ্ন ওঠে না। তবুও নিম্নে ভার্জিন ছেলে চেনার কয়েকটি উপায় দেয়া হলো।

১. আপনার একটু ছোঁয়া পাওয়ার জন্য পাগলের মত করবে এবং ছেলেটি অল্পতেই প্রচন্ড উত্তেজিত হয়ে যাবে।

২. আপনার সাথে যৌন মিলন করার জন্য অনেক বেশি তাড়া হুড়া করবে। সহবাস করার জন্য বার বার আপনাকে রিকুয়েস্ট করবে।

৩. তবে তার অতি দ্রুত বীর্যপাত হবে, এমনকি যোনীতে পুরুষাঙ্গ ঢুকানোর আগেই বীর্যপাত হয়ে যেতে পারে।

৪. কিস করা, ব্রেস্ট নিয়ে খেলা করার দিকে নজর না দিয়ে যোনীতে পুরুষাঙ্গ ঢুকানোর জন্য পাগল হয়ে উঠবে।

৫. ছেলেটি মেয়েটির শরীর স্পর্শ করতে লজ্জা বা ভয় পাবে। যদি ছেলেটি মেয়েটিকে একবার স্পর্শ করে, তাহলে পাগলের মতো স্পর্শ করতে থাকবে।

৬. ছেলেটি মেয়েটির সাথে শারীরিক সম্পর্ক শুরু করার আগে মেয়েটির অনুমতি নিবে। অনুমতি পেলে কি করবে, না করবে সে নিজেই খেয়াল রাখতে পারবে না।

উপরোক্ত বিষয়গুলো যদি কোন ছেলের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক শুরু করার ক্ষেত্রে দেখা যায়, তাহলে ছেলেটিকে আপাতদৃষ্টিতে ভার্জিন বলা যায়।

বিঃ দ্রঃ তবে কোন ছেলের ভার্জিনিটি আছে নাকি নেই, তা বোঝার কোন উপায় নেই।