মেইন ম্যেনু

ছেলেদের ‘অত্যাচার’ থেকে বাঁচতে বৃদ্ধ বাবা-মায়ের আত্মহত্যা

সম্পত্তির দাবিতে ছেলেদের অত্যাচার থেকে বাঁচতে আত্মহত্যা করেছেন এক বৃদ্ধ দম্পতি। ভারতের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বিষ্ণুপুরের ঘটনা। বাড়ির একটি ঘর থেকে উদ্ধার হয় তাঁদের ঝুলন্ত দেহ।

৮৫ বছর বয়সী মুরারিশরণ খাঁ এবং তার স্ত্রী ৭৫ বছর বয়সী বেদানা খাঁ ছেলেমেয়েদের মানুষ করেছেন বহু কষ্টে। বৃদ্ধ বয়সে সম্বল বলতে ১৫ বিঘে জমি। আর তাই নিয়েই যত অশান্তি।

লিখে দিতে হবে পনেরো বিঘে জমি, এই দাবি আর্থিকভাবে সুপ্রতিষ্ঠিত দুই ছেলের। একসময় চরমে ওঠে দুই ছেলের অত্যাচার। বাবা-মা একসময় চলে গিয়েছিলেন মেয়ের বাড়ি। তবে তাতেও রেহাই পাননি। তাঁদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনেন ছেলেরাই। এরপর আবার শুরু হয় জমি লিখে দেবার জন্য অত্যাচার।

শুক্রবার সকালেও শুরু হয় ছেলেদের অশান্তি। কিছুক্ষণ পর ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন মুরারিশরণ ও তাঁর স্ত্রী। কিছুক্ষণ পর দরজা ভেঙে উদ্ধার করা হয় স্বামী-স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ।

সম্পত্তি নিয়ে যে অশান্তির সূত্রপাত, মেনে নিয়েছেন ছেলেরা।

বৃদ্ধ বাবা-মার প্রতি ছেলেরা দায়িত্ব পালন না করায় মামলা হয়েছে একাধিকবার। এধরনের প্রতিটি মামলায় আদালত মনে করিয়ে দিয়েছে, বৃদ্ধ বয়সে বাবা-মার দেখাশোনা করাটা দায় নয়, কর্তব্য।