মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর পরকীয়ার জের

ছেলে, শাশুড়ি ও শ্যালিকাসহ ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যা

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার হিলি সীমান্ত সংলগ্ন ভীমপুর আদিবাসী পল্লীতে মেয়ের জামাইয়ের হাতে নৃশংসভাবে খুন হয়েছেন শ্বাশুড়ি, শ্যালিকা , ফুফা শ্বশুড় ও তার ৬ বছরের শিশু সন্তান।এ ছাড়া গুরুতর আহত করেছেন ঘাতক জামাইয়ের স্ত্রী শশীলা মার্ডি।এ ঘটনায় স্বামী ঘাতক সুমন হেমরনকে আটক করেছে পুলিশ।শুক্রবার (গতদিবাগত) রাতে এ ঘটনাট ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, দীর্ঘদিন ধরে সুমনের স্ত্রী- শশীলা মার্ডির সাথে প্রতিবেশি এক যুবকের পরকীয়া (প্রেমে )সর্ম্পক ছিল । সুমন স্ত্রীর এ অনৈতিক সমপ্র্কের বিষয়টি শ্বশুড়-শ্বাশুড়ীকে একাধিকবার জানালে এতে তারা কোনো কর্ণপাত করেনি।

গতরাতে (শুক্রবার রাতে) সুমন শ্বশুড় বাড়ীতে এসে স্ত্রীকে আগের মতই পরকীয়ায় জড়িত জানতে পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে । এ নিয়ে স্ত্রীর সাথে বাদানুবাদের এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে চাপাতি দিয়ে স্ত্রী শশীলা মার্ডি (২৯)কে আঘাত করে। এতে স্ত্রী গুরুত্বর আহত হয়। এর পরই একে একে নিজের শিশু সন্তান- সানি(৭), শ্বাশুরী- সন্ধ্যারানী মার্ডি(৪৯), শ্যালিকা তেরেজা মার্ডি (১৮)ও ফুফুা শ্বশুর- মাইকেল (৫৩)কে কুপিয়ে ও গলাকেটে খুন করা হয়।

পরে পুলিশ খবর পেয়ে এসে সুমনকে আট করে এবং লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। আহত স্ত্রী শশীলা মার্ডিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।