মেইন ম্যেনু

জঙ্গলে কিসের তাড়া খেলেন টার্মিনেটর?

হলিউডের অ্যাকশন ছবিতে একা হাতেই তিনি শায়েস্তা করেন ভিলেনদের৷ শুধু ঢিসুম ঢুসুম করেই ক্ষান্ত থাকেন না, দু’হাতে নানান ধরনের অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র চালিয়ে নিকেশও করেন শত্রুদের৷ তিনি আর্নল্ড সোয়ার্জেনেগার৷ হলিউড অভিনেতা ভেবেছিলেন ছবির পর্দায় ভিলেনদের মতো আফ্রিকার জঙ্গলের পশুরাও তাঁর অঙ্গুলিহেলনে চলবে৷ কিন্তু বাস্তবে ঘটল তার সম্পূর্ণ বিপরীত৷ আফ্রিকায় জঙ্গল সাফারিতে গিয়ে হাতির তাড়া খেলেন আর্নল্ড সোয়ার্জেনেগার৷

সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে সাফারিতে গিয়েছিলেন আর্নল্ড সোয়ার্জেনেগার এবং তাঁর কয়েকজন বন্ধু৷ জিপে বসে জঙ্গলি হাতির ভিডিও তুলতে দেখা যায় তাঁদের৷ চলছিল খোশমেজাজে আড্ডা-খুনসুটিও৷ আচমকা দেখা যায় একটি হাতি জিপের সামনে দাঁড়িয়ে শুঁড় দোলাচ্ছে৷ কাছ থেকে হাতি দেখে সকলেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে যান৷

এরপর হাতিটি সামনে থেকে গোল হয়ে ঘুরে জিপের পিছনে আসে৷ জিপ চালক কাম গাইড তখন ইঞ্জিনটি চালিয়েছে, অল্প অল্প আওয়াজও হচ্ছিল ইঞ্জিনটির৷ এক মহিলাকে বলতে শোনা যায় হাতিটা বোধহয় ইঞ্জিনের আওয়াজে ভয় পেয়ে গিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে৷ তখন সঙ্গিনীকে আশ্বস্ত করে হাল্কাচালে মন্তব্য করেন আর্নল্ড৷ তিনি বলেন, ‘না মনে হয়, ও আমাদের চেজ করবে৷’ অভিনেতার কথা সত্যিই করে হাতিটি এবার সত্যিই সত্যিই চেজ করে জিপটিকে৷ তারপর শুধুই পালাও পালাও আওয়াজ৷ হাতির তাড়া খেয়ে কেমন লাগল, জিজ্ঞেস করলে ‘টার্মিনেটর’ জানান, ‘সত্যিই বলতে কি অনেককেই তারপর ট্রাউজার বদলাতে হয়েছিল৷’ এক মিনিটের ভিডিওটি নিজেই টুইটারে পোস্ট করেন আর্নল্ড৷ পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি৷ ইতিমধ্যেই ২০ লাখেরও বেশি মানুষ দেখেছে ভিডিওটি৷