মেইন ম্যেনু

‘জঙ্গিবাদের পেছনে কারা সেটা খুঁজে বের করা হবে’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা মেধাবী শিক্ষার্থীদের বিপথে নিচ্ছে, তাদের খুঁজে বের করা হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে গণভবনে জঙ্গিবাদ বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে জেলা কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যারা দেশের উন্নয়ন চায় না তারাই সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড ও ষড়যন্ত্র করতে পারে। বাংলাদেশের উন্নয়নে ঈর্ষান্বিত হয়ে দেশি-বিদেশি মহল চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এসব মোকাবিলা করতে হবে। যাতে শান্তি বজায় থাকে।’

বাংলাদেশের মাটিতে জঙ্গিবাদের ঠাঁই হবে না উল্লেখ করে তিনি জঙ্গিবাদ নির্মূলে সবার সহযোগিতা কামনা করেন। এ সময় অভিভাবকদের আরো সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশের মানুষ ধর্মপ্রাণ, ধর্মান্ধ নয়। দেশের শিক্ষিত পরিবারের সন্তানরা কীভাবে ধর্মান্ধ হয় তা বোধগম্য নয়। ভুল পথে গিয়ে সন্তান প্রাণ দিক, এটা কোনো বাবা-মা চায় না। শিক্ষক, অভিভাবক, প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যে যেখানে আছেন প্রত্যেককেই নিজ নিজ স্থান থেকে সজাগ থাকতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ নির্মূলে প্রতিটি অঞ্চল থেকে কাজ করতে হবে। ভুল পথ থেকে ছেলেমেয়েদের ফিরিয়ে আনতে হবে। কমিটি গঠন করে জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। আমার দৃঢ় বিশ্বাস এ থেকে আমরা বেরিয়ে আসতে পারব।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের পবিত্র ধর্মকে কেউ কলুষিত করতে পারবে না। যারা জঙ্গিবাদের পথে নিতে চায়, তাদের খুঁজে বের করতে হবে। দেশে জঙ্গিবাদের কোনো স্থান হবে না। এ ক্ষেত্রে সবার সহযোগিতা চাই। সবাই মিলে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। আমরা বিশ্বসভায় মাথা উঁচু করে চলতে চাই।’