মেইন ম্যেনু

জঙ্গিবাদে ঢাকা পড়েছে তনু-মিতুর ইস্যু

মাস দুয়েক আগেও সংবাদ শিরোনাম এবং সবার মুখে মুখে ফিরছিল তনু হত্যাকান্ডের কথা। এরপর নির্মম ভাবে খুন হন এসপি বাবুল আকতারের স্ত্রী মিতু। বিষয়টিও টক অব দ্যা কান্ট্রি ছিল বেশ কয়েকদিন। কিন্তু গত কয়েকদিনে কোনো বিষয়ই আর আলোচনায় প্রাধান্য পাচ্ছে না দু’দফা সন্ত্রাসী হামলার পর।

রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে শুরু করে অর্থনৈতিক, প্রশাসনিক এবং সাংস্কৃতিক অনেক প্রসঙ্গ ঢাকা পড়ে গেছে জঙ্গিবাদ মাথাছাড়া দিয়ে উঠার পর। আবার কিছু বিষয়ে সরকারকে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে গত কয়েকদিনে। সরকারের পক্ষ থেকে কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে, যেগুলো সময়োপযোগি হলেও আগে গৃহীত হয়নি।

কূটনৈতিক এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার: গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার পর থেকে গুলশান, বারিধারা ও বনানীর কূটনৈতিক এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো জোরদার করা হয়েছে। বিষয়টি সবসময় গুরুত্বপূর্ণ হলেও অতীতে কখনো এখনকার মতো নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল না। এটি সবসময় কাম্য এবং প্রয়োজনীয় ছিল। এখন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, ‍গুলশান-২ নম্বর থেকে শুরু করে বারিধারা, পাকিস্তান হাইকমিশন ও ইউনাইটেড হাসপাতালের আশপাশ এলাকার কোনো সড়কে গণপরিবহন চলাচল করতে পারবে না। এ ছাড়া এ এলাকা কূটনীতিকদের জন্য বিশেষ নিরাপত্তা জোন হিসেবে ব্যবহৃত হবে। সেখানে বছরজুড়ে থাকবে বাড়তি নিরাপত্তা। এসব এলাকার সড়কে চলাচলকারী ব্যক্তিদের ওপর থাকবে নজরদারি। এদিকে কূটনীতিকসহ যে কোনো বিদেশি নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ‘হটলাইন’ চালু করেছে পুলিশ। সেখানে যে কোনো বিদেশি নাগরিক ২৪ ঘণ্টা ফোন করে সহযোগিতা চাইতে পারবেন।

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও বন্ধ: গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, গুলশান, বনানী ও বারিধারা আবাসিক এলাকার অবৈধ স্থাপনা নাগরিকদের নিরাপত্তার স্বার্থে উচ্ছেদের মাধ্যমে বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আবাসিক এলাকায় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্তের পর গত কয়েক দিন গুলশান, বনানী, বারিধারা এলাকায় অনুমোদনহীন প্রতিষ্ঠান ও স্থাপনার তালিকা হালনাগাদ করছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এরপর রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ১ হাজার ৬২৫টি অবৈধ স্থাপনার তালিকা প্রকাশ করে সরকার। এসব স্থাপনার মালিকেরা রাজউকের লিজ শর্ত ভঙ্গ করে আবাসিক এলাকায় বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। এগুলো উচ্ছেদে অবিলম্বে অভিযান শুরু করার পাশাপাশি তালিকাভুক্ত স্থাপনার গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তদারকির আওতায় সকল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়: ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশের সকল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অনেকটা নিজেদের মতো করে চলে আসছে। আইন প্রণয়ন করেও এসব উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়নি। কিন্তু সম্প্রতি একটি প্রতিষ্ঠানের দিকে আঙুল উঠার পর সকল বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে তদারকির আওতায় আনা হয়েছে। এতে শিক্ষার মান উন্নয়নের পাশাপাশি এসব প্রতিষ্ঠানের গুণগত মানের পরিবর্তন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল নিয়ন্ত্রণে আনার পরিকল্পনা: ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের উপর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আনার পরিকল্পনা করছে সরকার। বাইরের ক্যারিকুলাম এবং সিস্টেমে চলে বলে এসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তেমন একটি সর্ম্পক বা সমন্বয় থাকে না। এসব প্রতিষ্ঠান নিজেদের মতো করেই শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যায়। মাঝে মাঝে এসব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও কখনো এসব প্রতিষ্ঠানকে জবাবদিহীতার আওতায় আনা হয়নি। এবার তা হতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

সন্তানদের কর্মকান্ড নিয়ে আগ্রহী হচ্ছে পিতা-মাতা: মুক্তবাজার অর্থনীতি এবং আকাশ সংস্কৃতির যুগে একই ছাদের নীচে বসবাস করেও আমরা যোজন যোজন দূরে অবস্থান করি। পরিবারের সদস্যদের বিষয়ে অনেকটা উদাসীনতা ছিল অধিকাংশ পরিবারে। নৃশংস এই ঘটনার পর থেকে পিতা-মাতাসহ পরিবারের সদস্যরা নতুন করে খোঁজ নেয়ার চেষ্টা করছে সন্তানদের। পারিবারিক সর্ম্পকের প্রয়োজনীয়তা যেন নতুন করে চিনতে শুরু করেছে দেশবাসী।

আর গুলশান ও শোলাকিয়ারে ঘটনার পর ঢাকা পড়ে গেছে বেশকিছু আলোচিত ইস্যু। এর মধ্যে রয়েছে তনু হত্যাকান্ড, মিতু (বাবুল আকতারের স্ত্রী) হত্যাকান্ড, ভারতের সঙ্গে ট্রানজিট শুরু হওয়া, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি, বাজেটে নতুন নতুন ক্ষেত্রে করারোপ প্রভৃতি।

বিষয়গুলো গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশের সবচেয়ে আলোচিত বিষয় ছিল। কিন্তু জঙ্গি ইস্যুর উত্থানের পর এসব বিষয় বলতে গেছে ঢাকাই পড়ে গেছে।

নিরাপত্তা বিশ্লেষক অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাখাওয়াৎ হোসেন বলেন, দেশে একটি রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছিল। আশঙ্কা করা হচ্ছিল এর ফায়দা লুটতে পারে কোনো গোষ্ঠী। বিষয়টা অনেকটা ওরকম হয়ে দাঁড়িয়েছে। জঙ্গিরা রাজনৈতিক অস্থিরতার সুযোগ নিচ্ছে। তাই এ সময়ে নির্দিষ্ট পরিকল্পনা, সে মাফিক কাজ এবং সুদূরপ্রসারী কার্যক্রমের বিকল্প নেই।