মেইন ম্যেনু

জঙ্গিবাদ দমনের নামে মসজিদ, আলিম ওলামাদের উপর নজরদারি শুভ হবে না

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তরের ঈদ পূর্ণমিলনী ও যৌথ সভা আজ বিকাল চারটায় আইএবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন নগর উত্তরের সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ। নগর উত্তরের সেক্রেটারী মোশাররফ হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমদ।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, ঢাকা মহানগর উত্তর সহ সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, আলহাজ্ব হারুনুর রশিদ, জয়েন্ট সেক্রেটারী মাও: আরিফুল ইসলাম সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম নাঈম, এ্যাডভোকেট শওকত আলী, মুফতী মাছউদুর রহমান, মুফতী ফরিদুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনের নামে সরকারের কার্যক্রমে মনে হচ্ছে সরকার ইসলাম ও মুসলমান দমনের মিশনে নেমেছে। এদেশের লক্ষ লক্ষ আলিম ওলামা ও মসজিদের ইমাম খতীব কোন সময়ই সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের পক্ষে ছিলেন না এবং আদৌ থাকতে পারেন না। তারা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে সদা সোচ্চার ও জোরাল ভূমিকা পালন করে আসছেন। কিন্তু অতীব দুঃখের বিষয় সাম্প্রতিক কালে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনের নামে মসজিদ, ইমাম-খতীব ও আলিম ওলামাদের উপর নজরদারি ও জুমার খুৎবা নিয়ন্ত্রণ করার পদক্ষেপ গ্রহণ করে সরকার মূলত ইসলামকে নির্মূল ও দমনের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। নেতৃবৃন্দ এর তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, মসজিদ, মাদরাসা, আলিম-ওলামাদেরকে নজরদারিতে না এনে যারা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সাথে জড়িত ও মদদদাতা, তাদেরকে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক, এব্যাপারে ইসলামী নেতৃবৃন্দ সরকারকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রয়েছে।

নেতৃবৃন্দ আগামীকাল (১৬/০৭/১৬) ইং শনিবার বিকাল ৪ টায় বাইতুল মুকাররম উত্তর গেইটে আহুত গুলশান, শোলাকিয়াসহ জঘন্য সন্ত্রাসী হামলায় নিরীহ মানুষ হত্যা এবং বিদেশী আগ্রাসনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিলে নগরবাসীকে সতস্ফূর্ত অংশ গ্রহণ করার জন্য আহবান জানান।