মেইন ম্যেনু

জঙ্গি ইস্যুতে আ’লীগ-বিএনপি’র দোষারোপ, আড়ালেই থেকে যাচ্ছে মূল রহস্য

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া জঙ্গি হামলাসহ নানা ঘটনা দেশের দোষারোপের রাজনীতিতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। ক্ষমতাসীনদের দাবি এসব হামলার পেছনের কুশীলবের ভূমিকায় থাকতে পারে বিএনপি-জামায়াত। আর রাজনৈতিকভাবে কোনঠাসা বিএনপি বলছে, গণতন্ত্রের টুটি চেপে ধরাতেই এমন নাশকতা। এতে বিএনপির কোন হাত নেই বলেও দাবি দলটির নেতাদের। তবে উভয় দলই মনে করে এমন ঘটনা দেশকে পিছিয়ে দেবার ষড়যন্ত্র।

১ লা জুলাই হঠাৎই জঙ্গিদের বন্দুকের হুঙ্কারে কেপে উঠলো গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁ। প্রাণ যায় ১৭ বিদেশিসহ ২২ জনের। যৌথ বাহিনীর অভিযানে নিহত হয় ৬ জঙ্গি। এরপর দেশব্যাপী শুরু হয় জঙ্গি বিরোধী অভিযান। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার কল্যাণপুরে নিহত হয় ৯ জঙ্গি।

বিশ্বজুড়ে যখন আইএসএর বিরুদ্ধে যুদ্ধের দাবানল তখন সংগঠনটির ঢাকা হামলার দায় স্বীকার এদেশে যে তারা শিকড় গেড়েছে সেটি আন্তর্জাতিক মহলে প্রমাণের চেষ্টা। নাকি এসব স্থানীয় জঙ্গি সংগঠনের কাজ। এ নিয়ে রয়েছে জোড় বিতর্ক। তবে সরকারের দাবি দেশে আইএসএর কোন অস্তিত্ব নেই। এসব জঙ্গি হামলায় ম“ দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত।

তবে বিএনপি বলছে, ঘটনা তদন্তের আগেই ঢালাওভাবে বিরোধীদের দোষারোপ করায় আড়ালেই থেকে যাচ্ছে মূল রহস্য। দলটির নেতাদের আশা সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্র্থে এ ধরনের মন্তব্য এড়িয়ে চলবে সরকার।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমদ বলেন, বর্তমানে আমাদের দেশটি একটি পুলিশ স্টেট এ পরিণত হয়েছে। কারো কোন জবাবদিহিতা নেই। বিএনপিকে এবং অন্য বিরোধী দলকে দমন করতেই পুলিশের সর্ব শক্তি নিয়োজিত আছে। দেশে যা কিছুই ঘটুক আওয়ামী লীগ শুধু দেখে বিএনপি এবং বিরোধী দল এটি করছে। যেই কারণে প্রকৃত অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে এবং এটি অত্যন্ত দু:খজনক। উচ্চপদস্থ ব্যক্তিবর্গও প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীরাও এই ধরনের মিথ্যাচার করেই যাচ্ছেন। আমাদের পক্ষে জঙ্গিবাদ লালন করার প্রশ্নই ওঠে না। আমরা শান্তিপ্রিয় ও গণতান্ত্রিক একটি দল।

ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের অভিযোগ যারা স্বাধীনতা চায়নি এমন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্র দেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তাদের অতীত কর্মকা-ের সাক্ষ্য দেয় জনবিচ্ছিন্ন হয়ে এখন সন্ত্রাসের মাধ্যমে ক্ষমতায় যেতে মরিয়া তারা।

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেন, দেশে গণতন্ত্র নেই এটি একটি ফাঁকা শ্লোগান। আসলে গণতন্ত্র কোথায় বিএনপি বলেন আর অন্যদের বলেন সবাই তো প্রকাশ্যে কথা বলছে। তাদের যা ইচ্ছা তাই বলছেন যেখানে খুশি সেখানে বলছেন। কাজেই আমি বলব যে ঘুড়ে ফিরে তো সব কিছু একই হচ্ছে। এগুলো হচ্ছে সরকারকে উৎখাত করার একটা চেষ্টা।

এই দুই নেতাই মনে করেন সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে খুব শীঘ্রই এর জট খুলবে। এইচ টি ইমাম আরো বলেন, ওই লোকগুলো যে ধনেরই হোক না কেন তারা তো ধরা পড়বেই।