মেইন ম্যেনু

জঙ্গি হামলায় আহত দুই ওসি আইসিইউতে

মিরপুরে জঙ্গি হামলায় গুরুতর আহত রূপনগর থানার ওসি সৈয়দ সহিদ আলম ও শাহীন ফকিরকে (ওসি, তদন্ত) স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়েছে। সফল অস্ত্রোপচারের পর শুক্রবার রাতেই তাদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়।

ডিএমপির তেজগাঁও জোনের ডিসি বিপ্লব কুমার জানান, শহীদ ও শাহীনের অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তারা শঙ্কামুক্ত নন। বর্তমানে তাদের আইসিইউতে রাখা হয়েছে।

অভিযানে অংশ নেওয়া পুলিশ সদস্যরা জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার পর রূপনগরের ছয় তলা ভবনে অভিযানে যায় রূপনগর থানা পুলিশ। দরজা নক করতেই জঙ্গি মুরাদ দরজা খোলে। পুলিশ ভেতরে প্রবেশ করতে চাইলে মুরাদ পিস্তল ও ধারালো ছুরি নিয়ে পুলিশের ওপর আক্রমণ চালায়। এতে ওসিসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তা গুরুতর আহত হন।

আহতাবস্থায় পুলিশ সদস্যরা পাল্টা গুলি চালালে মেজর মুরাদ ওরফে জাহাঙ্গীর নিহত হন।

পরে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রাতেই দুই ওসিকে স্কয়ার হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন চিকিৎসকরা।

ঢাকা মেডিকেলের আবাসিক চিকিৎসক জেসমিন নাহার রাতে জানিয়েছিলেন, ওসি শহীদুলের কোমরে এবং শাহীনের বাঁ কাধ ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের জখম হয়েছে। এ ছাড়া উপ-পরিদর্শক (এসআই) মমিনুর রহমানের ডান হাতে ধারালো অস্ত্রের জখম রয়েছে।

এদিকে খবর পেয়ে রাতেই স্কয়ার হাসপাতালে ছুটে যান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সেখানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, নিহত জঙ্গির হাতে ধারালো অস্ত্র ও পিস্তল ছিল। এগুলো দিয়ে সে আক্রমণ চালায়।