মেইন ম্যেনু

জটিল ধরণের মানুষদের সাথে ঝামেলা এড়িয়ে চলার কার্যকরী ৯ কৌশল

আমাদের সকলের জীবনেই কিছু জটিল মানুষ আছেন, যাদের সাথে বিনা কারণেই ঝামেলা হয়। এসব মানুষেরা অল্পতেই রেগে ওঠেন, কারণে-অকারণে ঝামেলা তৈরি করেন, আপনার মনের শান্তি নষ্ট করতে তাদের জুড়ি মেলা ভার। এই সব জটিল মানুষ হতে পারেন অফিসের বস, শ্বশুর বাড়ির কেউ, পাড়া প্রতিবেশী, আত্মীয়, এমনকি জীবন সঙ্গী পর্যন্ত। না এদেরকে এড়িয়ে চলা যায়, না এদের সাথে চলা যায়। কী করবেন? জেনে নিন জটিল ধরণের মানুষদের সাথে সব রকমের ঝামেলা এড়িয়ে চলার কিছু কৌশল।

১) চেষ্টা করবেন পারত পক্ষে এদের সাথে লম্বা কথোপকথন এড়িয়ে চলতে। বেশী কথা বলা মানেই ঝামেলা বেশী হওয়ার সুযোগ। যেটুক না বললেই নয়, সেটুকুই বলুন।

২) এদেরকে সরাসরি দোষারোপ করে কোন কথা বলবেন না। এতে তারা আক্রমণাত্মক হয়ে পুরোটা না শুনেই আপনার ওপরে ঝাঁপিয়ে পড়বেন। বুঝে শুনে বুদ্ধি করে কথা বলুন।

৩) ধৈর্য ধরে কথা শোনার অভ্যাস করুন। জটিল ধরণের মানুষদের ক্ষেত্রে এই মন দিয়ে কথা শুনতে পারার অভ্যাসটি আপনার খুব কাজে আসবে। অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যা এড়িয়ে যেতে পারবেন।

৪) ভুলেও নিজের কোন ব্যক্তিগত কথা এদেরকে বলবেন না। এবং এদের কোন ব্যক্তিগত ব্যাপারে ভুলেও মন্তব্য করবেন না। তার জীবন, তিনি যা ইচ্ছা করুক। আপনার মন্তব্য করার কোন প্রয়োজন নেই।

৫) এমন কোন কথা বলবেন না, যাতে তাদের মনে হয় আপনি উপদেশ দিচ্ছেন বা উপদেশ দেয়ার চেষ্টা করছেন। এতে অহেতুক ঝামেলাই বাড়বে।

৬) ঝামেলার সূত্রপাত হয় সবকিছু নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা থেকে। জটিল ধরণের মানুষেরা সকলকে নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান। তাদের এই ভুল ধারণা ভাঙানোর চেষ্টা করবেন না। কেবল আপনি নিজে তার আওতার বাইরে থাকুন।

৭) যে কাজটি আপনি করতে পারবেন না, সেই কাজের ক্ষেত্রে স্পষ্টভাবে আগেই বলে দিন যে আপনার পক্ষে সেটি সম্ভব না। ঘুরিয়ে বলবেন না, এতে ভুল বোঝাবুঝি বাড়বে।

৮) জটিল ধরণের মানুষেরা অন্যকে কথা বলার সুযোগ দেন না। তবে নিজের কথা অবশ্যই স্পষ্ট ভাবে বলবেন। এবং চেষ্টা করবেন তৃতীয় ব্যক্তির সামনে বলতে। এতে ঝামেলা কম হবে।

৯) জটিল মানুষদেরকে খুব বেশি পাত্তা দেয়ার বা ভয় পাবার কোন প্রয়োজন নেই। একবার তারা যদি বুঝে ফেলে যে আপনি ভয় পাচ্ছেন, তাহলে আরও পেয়ে বসবে।

শেষ কথা এই যে, আমরা চাইলেও সর্বদা ঝামেলা এড়িয়ে চলতে পারি না। কিছু মানুষ জীবনে অশান্তি করতে চলেই আসে। এমন মানুষ থেকে যত দূরে থাকবেন, ততই ভালো থাকবেন।

সূত্র
সাইকোলজি টু ডে তে প্রকাশিত প্রবন্ধ 8 Ways to Talk to Difficult People হতে অনুপ্রাণিত