মেইন ম্যেনু

জন্মদিনে প্রিয়জনকে তো দামি গিফট দেন! ফিনল্যান্ডকে নরওয়ে কী দিচ্ছে জানেন?

আগামী বছর ফিনল্যান্ড তাদের ১০০ স্বাধীনতা দিবস পালন করবে। আর সেই মুহূর্তটিকে স্মরণীয় করে রাখতেই অভিনব সিদ্ধান্ত নিয়েছে নরওয়ের সরকার।

জীবনে প্রিয়জনকে অনেকেই নানাবিধ দামি জিনিস উপহার দেয়। আপনিও হয়তো দিয়েছেন। কিন্তু তাই বলে আস্ত একটা পাহাড়?

দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের তুলনায় শত্রুতার খবরই বেশি শোনা যায়। কিন্তু এক দেশ অন্য দেশকে পর্বতশৃঙ্গ উপহার দেওয়ার কথা শোনা যায় না। আগামী বছর ফিনল্যান্ড তাদের ১০০ স্বাধীনতা দিবস পালন করবে। আর সেই মুহূর্তটিকে স্মরণীয় করে রাখতেই নিজের দেশের সীমানার মধ্যে থাকা একটি পর্বতমালার একটি শৃঙ্গ ফিনল্যান্ডকে উপহার দিতে চায় নরওয়ে।

এমনকী, তার জন্য নিজেদের সীমানার অন্তর্ভুক্ত কিছুটা এলাকাও ছাড়তে রাজি নরওয়ে। ফিনল্যান্ড এবং নরওয়ে সীমান্তে রয়েছে হাল্টি পর্বতমালা রয়েছে। এই পর্বতমালার সর্বোচ্চ শৃঙ্গটি রয়েছে ফিনল্যান্ডের দিকেই। কিন্তু সেই শৃঙ্গের বাকি অংশটুকু রয়েছে নরওয়ের সীমানার মধ্যে। এই পর্বতমালার মধ্যে দিয়ে ১৭৫০-এর দশকে সীমানা নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু ভূ-পদার্থবিদদের মতে, এই সীমানা সঠিকভাবে নির্ধারণ করা হয়নি।

যদিও নরওয়ের সংবিধান অনুযায়ী, দেশের অন্তর্ভুক্ত কোনও এলাকার নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা অন্য কারও হাতে দেওয়া সম্ভব নয়। ফলে, আইনি জটিলতা মিটিয়ে কতদিনের মধ্যে নরওয়ে ফিনল্যান্ডকে এই উপহার দিতে পারে, তা নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই। কিন্তু এই সৌভ্রাতৃত্বের যে নজির নরওয়ে তৈরি করার চেষ্টা করল, তার জন্য তাদের প্রশংসা অবশ্যই প্রাপ্য। এমনিতেই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্য ফিনল্যান্ডের সুনাম রয়েইছে। এই পর্বতশৃঙ্গটি যে হ্রদে ঘেরা ফিনল্যান্ডের ল্যান্ডস্কেপকে আরও সমৃদ্ধ করবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।