মেইন ম্যেনু

জন্মহারের চেয়ে ফেসবুক ব্যবহারকারী বেশি : পলক

তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জোনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ‘প্রতি ১২ সেকেন্ডে একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী বাড়ছে, যা আমাদের জন্মহারের চেয়ে বেশি।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে ২০০৮ সালে ফেসবুক ব্যবহারকারী ছিল ১০ হাজার। বর্তমানে তা বেড়ে হয়েছে ৩ কোটি।’

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে ব্লগ সাইট আর্টিক্যাল ১৯ আয়োজিত ‘কনসালটেশন ওয়িদ পার্লামেন্টারিয়ানস দি আইসিটি অ্যাক্ট, ২০২৬; ইমপ্লিক্যাশনস ফর ফ্রিডম অব অনলাইন এক্সপ্রেশন’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রেজেন্টেশন তুলে ধরেন আর্টিক্যাল ১৯-এর নির্বাহী পরিচালক থমাস হিউজ।

‘আইনের জন্য মানুষ নয়, মানুষের জন্য আইন’, উল্লেখ করে পলক বলেন, ‘অনলাইনে কোনো কিছু প্রকাশ করলে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু অফলাইনে তার প্রভাব তেমন একটা পড়ে না। তাই বিশাল এই অনলাইনের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে অনলাইন আইন প্রয়োগের প্রয়োজন। এ ছাড়া আগের আইনগুলোরও সংশোধন প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘ব্লগারদের অধিকার, অনলাইনে মতামত প্রকাশের অধিকার এবং অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে আইনের বিধান তৈরি করতে সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে কথা বলতে হবে।’

আইসিটি এক্সপার্ট মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমাদের সমগ্র আইন ব্যবস্থায় ত্রুটি রয়েছে। কোনো কোনো আইন আছে, যা শত বছর আগের। কিন্তু এই ১০০ বছর আগের আইন বর্তমান ডিজিটাল যুগে প্রয়োগযোগ্য নয়। তাই আমাদের কমপক্ষে ১০০ আইন পরিবর্তন করতে হবে। আর ব্লগারদের একটা ক্যাটাগরিতে রাখতে হবে। ব্লগাররা আসলে কী, তারা কি সাংবাদিক, নাকি অন্য কিছু, তা স্পষ্ট করতে হবে।’

আর্টিক্যাল ১৯-এর বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক তাহমিনা রহমানের সঞ্চালনায় আলোচনায় আরো উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ হাই কমিশনের পলিটিক্যাল শাখার প্রধান অ্যাড্রিয়ান জন, সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, শিরিন আকতার, হোসনে আরা বেগম ডালিয়া, রুস্তম আলী ফরাজিসহ সাংবাদিক এবং অনলাইন অ্যাকটিভিস্টরা।