মেইন ম্যেনু

জমি নিয়ে সংঘর্ষ, পুলিশের ওপর হামলা

মাদারীপুর : জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে সোমবার রাতে শতাধিক বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ বাধা দিলে তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়। এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত পাঁচজন আহত হয়।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পৌর এলাকার উত্তর রাজদী গ্রামের মো. আকতার কাজীর সঙ্গে দক্ষিণ রাজদী গ্রামের মিজানুর হাওলাদের দীর্ঘদিন ধরে শত্রুতা চলছিল। এরই সূত্র ধরে রোববার ভোরে মিজান হাওলাদার তার দলবল নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আকতার কাজীর একটি টিনসেডের বসতঘর গুড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় তাদের বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে করে আকতার কাজীসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে কালকিনি থানা পুলিশ এসে পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এদিকে, জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে ফের মো. মিজানুর হাওলাদারের নেতৃত্বে সোমবার গভীর রাতে তার লোকজন একই স্থানে শতাধিক বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আকতার কাজীর বসতঘর লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় কালকিনি থানা পুলিশ বাধা দিলে তাদের ওপরও হামলা করে তারা। এসময় পরিস্থতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে করে কালকিনির পৌর এলাকার ঘুমন্ত মানুষের মধ্যে চরম আতঙ্ক সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে আকতার কাজী বলেন, ‘আমি আমার কেনা জমিতে বসতঘর তুলেছিলাম। সেই ঘর বোমা মেরে গুড়িয়ে দিয়েছে মিজানুর। তারা আমার বাড়ির মালামাল লুটপাট করে নিয়ে গেছে।’ তার কথার সত্যতা যাচাই করতে মিজানুর হাওলাদারের সঙ্গে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্দু বালা বলেন, ‘ওই জমি হিন্দুদের। কিন্তু উভয় পক্ষই জমিটি দখলের চেষ্টা করে। আর এতেই সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।’