মেইন ম্যেনু

জমে উঠছে রাজধানীর পশুর হাটগুলো

সপ্তাহ-খানেক পরেই কোরবানির ঈদ। ধীরে ধীরে সরগরম হতে শুরু করেছে রাজধানীর পশুর হাটগুলো। ঈদকে সামনে রেখে রাজধানীর পশুরহাটগুলোতে প্রচুর সংখ্যক গরু-ছাগল আসতে শুরু করেছে। সকাল কিংবা রাত, ২৪ ঘণ্টাই ট্রাক ভর্তি করে গরু-ছাগল আসছে ঢাকার বিভিন্ন এলাকার পশুর হাটে।

বেশি দামে বিক্রির আশায় দেশের নানা প্রান্ত থেকে কোরবানির পশু ঢাকায় আনছেন কৃষকরা। অন্যদিকে কেনার আগে দাম যাচাই-বাছাই করতে হাটে ভিড় করছেন ক্রেতারাও। কোনো গরু একটু নাদুসনুদুস হলেই, ইচ্ছে মতো দামও হাঁকছেন বেপারিরা। তবে ক্রেতারাও কম যান না, যাচাই-বাছাই ছাড়া বলছেন না দাম। পুরোদমে বেচা-বিক্রি শুরু না হলেও কয়েক দিনের মধ্যে হাট জমে উঠবে বলে প্রত্যাশা করছেন বিক্রেতারা। তবে ন্যায্য দাম প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে দেশে ভারতীয় গরুর প্রবেশ ঠেকানোর জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বেশিরভাগ গরু আসছে রাজশাহী, রংপুর, বগুড়া, গাইবান্ধাসহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে। তুলনামূলক বেশি লাভের আশায় রাজধানীতে গরু আনছেন বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা। অন্যদিকে হাটে ক্রেতার সংখ্যাও বাড়ছে ধীরে ধীরে। তবে ঈদের বেশ ক’দিন বাকি থাকায় কেনার চেয়ে দাম যাচাইয়েই বেশি ব্যস্ত তারা। পশুর হাটের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ইজারাদাররা।

এদিকে, চাহিদার তুলনায় দেশে বেশি সংখ্যক কোরবানির পশু রয়েছে দাবি করে ভারতীয় গরু-ছাগলের প্রবেশ ঠেকানোর জোর দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। ছোট-বড় মিলিয়ে এবার রাজধানীতে ২১টিরও বেশি পশুর হাট বসেছে।-তথ্য সূত্র: সময় টিভি ও চ্যানেল টোয়েন্টিফোর।