মেইন ম্যেনু

জলবায়ু সমস্যা সারাবিশ্বে, উচ্চবাচ্য যা বাংলাদেশেই

বন নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশও সমস্যায় আছে স্বীকার করে পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেছেন, ‘বন ও জলবায়ু নিয়ে বিশ্বের অনেক দেশ সমস্যায় থাকলেও তা নিয়ে তেমন উচ্চবাচ্য হয়না। কেবল বাংলাদেশের ক্ষেত্রেই এটি হয়।’

মঙ্গলবার (২১ জুন) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘জাতীয় বননীতি-২০১৬’ বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বন অধিদপ্তর, সিআরপিএআরপি (ক্লাইমেট রিজিলেন্স পার্টিসিপেটরি অ্যাফোরসেশন অ্যান্ড রিফোরসেশন প্রোজেক্ট) ও দ্য ওয়ার্ড ব্যাংক এ কর্মশালা আয়োজন করে।

বনমন্ত্রী বলেন, ‘তাজমহল যমুনার পাড়ে। এই যমুনা যে এখন ড্রেন হয়ে গেছে তা কেউ দেখে না। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বৃক্ষ গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ সরকার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে। আমাদের সমস্যা আছে। তবে তা বাংলাদেশের মানুষ মোকাবেলা করতে পারবে। সবুজ বিশ্বের বাংলাদেশ অংশের কাজ আমরা এগিয়ে নেব।’

তাপ বৃদ্ধির কারণে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা ৩ ফুট বেড়ে গেলে বাংলাদেশ যেমন পানির নিচে তলিয়ে যাবে, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে ওয়াশিংটন ডিসি, ক্যালিফোর্নিয়া ও ফ্লোরিডাও থাকবে না থাকবে না মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী মো. আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এবং পরিবেশ ও বনসচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের রাজেস্রী পারালকার, এগ্রিকনসালটিং-এসওডিইভি এর টিম লিডার ড. এইসএস পাবলা, সিআরপিএআরপি প্রোজেক্ট ডিরেক্টর মি. উত্তম কুমার সাহা, ড. ডেনিস কেনজাল প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন, বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মো. ইউনুস আলী প্রমুখ।