মেইন ম্যেনু

জলাবদ্ধতা প্রসঙ্গে ১৪০০ বছর আগে পবিত্র কোরআন যা বলেছে

রাজধানী ঢাকায় সম্প্রতি বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার মাত্রা চরম আকার ধারণ করেছে। যে দিকে চোখ যায় সেদিকে পানি আর পানি। দূর থেকে দেখলে মনে হয়, যেন একটা নদী। রাজধানীর এ জলাবদ্ধতার জন্য দায়ী অবশ্য মানুষ নিজেই।

মহান আল্লাহ তা’য়ালা বৃষ্টির পানির মা্ধ্যমে জমিনকে সজীব করে প্রত্যেক জীবজন্তুর বিস্তৃতি ঘটান। আসমান ও জমিনের মাঝখানে নিয়ন্ত্রিত বায়ু ও মেঘ পানির পরিবর্তনে জ্ঞানী সম্প্রদায়ের জন্য নিদর্শন বিদ্যমান।’

জমিনকে সজীব ও জীব জন্তুর উপকারের জন্য আল্লাহ পানি বর্ষণ করেন। ঘোষণাটি কোরআনের। অথচ আজ টানা পানি বর্ষণে দুর্ভোগে মানুষ। রাজধানীতে জ্বলাবদ্ধতায় মানুষের ভোগান্তির কমতি নেই। দূষিত পানি জমে আছে পথে ঘাটে বাসা বাড়ির নিচে। দূষিত পরিবেশে সৃষ্টি হচ্ছে রোগবালাই। এর কারণ কি? এগুলোর জন্য দায়ী মানুষ নিজেই। বৃষ্টির পানির সুষ্ঠু ব্যবহারে নেই কোনো কার্যকর উদ্যোগ। ফলে একটুখানি বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতা তৈরি হচ্ছে। এ বিষয়ে অবশ্য পবিত্র কোরআন ১৪০০ বছর আগেই মহান আল্লাহ তা’য়ালা ঘোষণা দিয়েছেন, ‘জলে-স্থলে যে বিপর্যয় দেখা দিয়েছে তা মানুষের অর্জনেরই ফসল’ (সূরা রুম : ৪১)। সুতরাং জলাবদ্ধতার বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেতে মানুষকে অনেক বেশি সচেত হতে হবে।