মেইন ম্যেনু

জাতিসংঘ মহাসচিব সন্ত্রাসকে উসকে দিচ্ছেন: নেতানিয়াহু

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু অভিযোগ করে বলেছেন, জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন সন্ত্রাসকে উসকে দিচ্ছেন।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলে বান কি মুন সম্প্রতি এক ইসরায়েলিকে ফিলিস্তিনির ছুরিকাঘাতের নিন্দা জানান এবং ফিলিস্তিনের কথা উল্লেখ করে বলেন, নিপীড়িত জনগণ প্রতিক্রিয়া জানায়। এটা মানুষের স্বাভাবিক প্রকৃতি।

জাতিসংঘ মহাসচিবের এমন বক্তব্য সন্ত্রাসকে উসকে দেবে উল্লেখ করে সোমবার এক বিবৃতিতে নেতানিয়াহু বলেন, সন্ত্রাসের জন্য কোনো যুক্তি নেই। ভবিষ্যতে এই ধরনের ভাষা ব্যবহারের ক্ষেত্রে আরো বেশি সাবধান হতে হবে। দায়িত্ব ছাড়ার আগে বান কি মুনকে সুনির্দিষ্ট ও স্পষ্টভাবে কথা বলতে হবে।

গত বছরের অক্টোবরের সহিংসতায় ১৫৫ জনের বেশি ফিলিস্তিনি, ২৮ জন ইসরায়েলি, একজন আমেরিকান ও একজন ইরিত্রীয় নাগরিক নিহত হন।

এদিকে গত সোমবার ২৪ বছর বয়সি এক ইসরায়েলি নারীকে নৃশংসভাবে ছুরিকাঘাত করা হয়। গত ১০ দিনের মধ্যে তৃতীয়বার এই ধরনের হামলা হলো। অবশ্য দুই ফিলিস্তিনি আক্রমণকারীকে ইসরায়েলি নিরাপত্তারক্ষীরা গুলি করে হত্যা করেছে।

ইসরায়েল বলেছে, নিহত ফিলিস্তিনিদের অধিকাংশই আক্রমণকারী। আর বাকিদের বিক্ষোভ ও সংঘর্ষের সময় ইসরায়েলি বাহিনী গুলি করে হত্যা করেছে।

নিরাপত্তা কাউন্সিলকে বান কি মুন বলেন, এই ধরনের আক্রমণ কিছু ফিলিস্তিনি বিশেষ করে বিচ্ছিন্নতাবাদী ও হতাশাচ্ছন্ন তরুণরা চালায়। ফিলিস্তিনিদের এই হতাশা প্রায় অর্ধশতাব্দী ধরে বাড়ছে এবং শান্তি প্রক্রিয়ার জন্য এটা বড় বাধা।

তিনি আরো বলেন, ওই বয়সে নিপীড়িতরা প্রতিক্রিয়া করবে, এটাই মানুষের প্রকৃতি। যা ক্ষমতাসীনদের কাছে ঘৃণা ও চরমপন্থাকে উসকে দেওয়ার মতো মনে হয়।

বান কি মুন আক্রমণের নিন্দা জানান। তবে তিনি বলেন, ইসরায়েলের বসতি নির্মাণ প্রকল্প ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র তৈরির সংকল্পের ব্যাপারে সন্দেহ সৃষ্টি করে।

তবে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু জাতিসংঘ মহাসচিবের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, রাষ্ট্র তৈরির বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিরা কাজ করছে। ফিলিস্তিনি খুনিরা রাষ্ট্র সৃষ্টি করতে চায় না, তারা রাষ্ট্রকে ধ্বংস করতে চায় এবং এটা তারা খুব উচ্চ স্বরে বলে থাকে। তারা শান্তির জন্য হত্যা করে না, মানবাধিকারের জন্যও নয়।

জাতিসংঘের নিরপেক্ষতা নিয়ে তিনি বলেন, অনেক আগেই জাতিসংঘ তাদের নিরপেক্ষতা এবং নৈতিকতা হারিয়েছে।

এদিকে ইহুদিদের আন্তর্জাতিক সংগঠন ওয়ার্ল্ড জিউস কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড এস লাউডার বলেছেন, বান কি মুন তার বক্তব্যে সন্ত্রাসবাদের বিপজ্জনক যুক্তি দিয়েছেন। এটা খুবই উদ্বেগজনক ও বেদনাদায়ক যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের একজন নেতা অমার্জনীয় এক অজুহাত দেখিয়েছেন।

উল্লেখ্য, মার্কিন সমর্থিত ইসরায়েল-ফিলিস্তিনি শান্তি আলোচনা ২০১৪ সালে ভেস্তে যায়। ফিলিস্তিনিরা অভিযোগ করে, ইসরায়েলিরা ফিলিস্তিনের জায়গায় বসতি নির্মাণ করছে।

সোমবার পিস নাও নামে একটি এনজিও বলেছে, পশ্চিম তীরে নতুন করে ১৫৩টি ভবন নির্মাণের অনুমোদন দিয়েছে ইসরায়েল।

তথ্যসূত্র : বিবিসি