মেইন ম্যেনু

জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে আ.লীগ

২০১৯ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ের মিশনে মাঠে নেমেছে টানা দুইবার সরকার গঠন করা আওয়ামী লীগ। এ লক্ষ্যে চলতি বছরের অক্টোবরের মধ্যে সর্বাত্মক সাংগঠনিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে দলটি। রাইজিংবিডিকে এমন তথ্য জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা।

আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, ‘আমাদের নেত্রী সরকারপ্রধান হিসেবে ধারাবাহিকভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে উন্নয়নকাজের উদ্বোধন করছেন। এর পাশাপাশি তিনি দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে জনগণের সামনে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফিরিস্তি তুলে ধরছেন। দলীয়ভাবে আমরাও নেত্রীর ভিশন বাস্তবায়নে নেতা-কর্মীদের জনকল্যাণ কর্মসূচির মাধ্যমে জনগণের পাশে থাকার নির্দেশনা দিচ্ছি। ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগের সম্মেলন হয়েছে। আগামী ১৯ মার্চ তাঁতী লীগ এবং ২৯ এপ্রিল আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সম্মেলন হবে। যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগের সম্মেলনের তারিখ আওয়ামী লীগের দলীয় ফোরামে চূড়ান্ত করা হবে।’

দলীয় সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ২০২০ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করতে পুনরায় সরকার গঠনে নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। গত ২ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদ ভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভা হয়। সভায় সংসদীয় দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা দলীয় এমপিদের জাতীয় নির্বাচনের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণের আহ্বান জানান।

রোববার (১২ মার্চ) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে শ্রমিক লীগের আলোচনা সভায় নেতা-কর্মীদের আগামী অক্টোবরের মধ্যে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের জন্য সর্বাত্মক সাংগঠনিক প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘আমরাস্মার্ট আওয়ামী লীগ নিয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে চাই। এটা আমাদের কমিটমেন্ট। কারণ, আমরা আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বীকে হালকা করে দেখি না। নির্বাচনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে, সে কথা মাথায় রেখেই আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হচ্ছি।’

গণভবন সূত্রে জানা যায়, মার্চ ও এপ্রিল জুড়ে প্রধানমন্ত্রীর কয়েকটি জেলা সফর কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়েছে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামীকাল মঙ্গলবার লক্ষ্মীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর ২১ মার্চ মাগুরা, ২৮ মার্চ ফরিদপুর, ১৫ এপ্রিল ঠাকুরগাঁও, ২৩ এপ্রিল বরগুনা, ২৯ এপ্রিল চুয়াডাঙ্গায় রাষ্ট্রীয় সফরের পাশাপাশি স্থানীয় আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিভিন্ন জনসভায় বক্তব্য রাখবেন তিনি।

আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর দুজন সদস্য বলেন, দলের সভাপতি শেখ হাসিনা গত অক্টোবর অনুষ্ঠিত দলের ২০তম জাতীয় সম্মেলনেই সব স্তরের নেতা-কর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন। নেত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত কাজ করছি। চলতি বছরের অক্টোবর থেকে নভেম্বরের মধ্যে সকল সাংগঠনিক প্রস্তুতি নেওয়া হবে। একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে নেত্রী বিভাগওয়ারী তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে গণভবনে বৈঠক করবেন। এসব বৈঠকে তিনি তৃণমূল নেতাদের কথা শোনার পাশাপাশি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের লক্ষ্যে চূড়ান্ত নির্দেশনা দেবেন।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই নির্বাচনী মাঠের দল ছিল। সেই ধারাবাহিকতা এখনো আছে। আমরা এখন নির্বাচনমুখী। আমরা নেত্রীর নির্দেশনায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ শুরু করেছি।’