মেইন ম্যেনু

জানেন, কেন সূর্যোদয়ের আগে ফাঁসি দেয়া হয়? জানলে অবাক হবেন…

বাংলাদেশ ও ভারতসহ পৃথিবীর অন্যান্য দেশে দণ্ডবিধির চরমতম শাস্তি হলো মৃত্যুদণ্ড বা ফাঁসি। কঠিন অপরাধের ক্ষেত্রে এ শাস্তি দেয়া হয়ে থাকে। কিন্তু কেন সব সময় সূর্য ওঠার আগেই ফাঁসি দেয়া হয়, জানেন কি?

বাংলাদেশের কাদের মোল্যা, মতিউর রহমান নিজামী, কামারুজ্জামান, সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরী ও ভারতের আজমল কাসব, আফজল গুরু বা ইয়াকুব মেমনের মতো যাদের সাম্প্রতিককালে ফাঁসি হয়েছে তাদের প্রত্যেকের ক্ষত্রেও একই সময় বেছে নেয়া হয়েছে ফাঁসির জন্য। কিন্তু কেন?

সূর্যদয়ের আগে ভোর রাতে অপরাধীকে সব সময় ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে দেয়ার মূলত কারণ তিনটি-

১) অনেক ক্ষেত্রেই ফাঁসির সাজার বিরুদ্ধে নাগরিক সমাজে জনমত তৈরি হয়। বিভিন্ন গণআন্দোলন ও উত্তেজনা সৃষ্টি হয়ে থাকে। তাই ভোর রাতের সময়টিকেই বেছে নেয়া হয়। সাধারণত এ সময়ে সবাই ঘুমে আচ্ছন্ন থাকেন।

২) আইন অনুসারে একটি ফাঁসি সংঘটিত করতে জেল কর্তৃপক্ষকে অনেকগুলো কাজ ধাপে ধাপে করতে হয়। নানান খাতাপত্রে একাধিক বিষয় নথিভুক্ত করতে হয়। ফলে সূর্যদয়ের আগেই গোটা প্রক্রিয়াটা শুরু করলে বিষয়টা অনেকটা আগেই মিটে যায়। এর ফলে জেলের দৈনন্দিন কাজে আর কোনো ব্যাঘাত ঘটে না।

৩) ফাঁসি হয়ে যাওয়ার পর মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেয়াই রেওয়াজ। তাই ফাঁসি সূর্যোদয়ের আগেই হলে দেহটা পরিজনদের হাতে সকাল সকালই তুলে দেয়া যায়। যার ফলে পরিবারের তরফেও দাফন করার খানিকটা সময় থাকে।