মেইন ম্যেনু

রংপুরে জাপানী বিশেষজ্ঞ দল

জাপানী নাগরিকের লাশ বুধবার হস্তান্তর

জাপান থেকে আসা প্রতিনিধি দলের কাছে বুধবার যে কোনো সময় জাপানী নাগরিক হোচি কুনিওর লাশ হস্তান্তর করা হবে। জাপানী প্রতিনিধি দলে চারজন অপরাধ বিশেষজ্ঞ ও দু’জন পুলিশ সদস্য রয়েছেন।

এ প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজের মর্গে হোচি কুনিওর লাশ পর্যবেক্ষণসহ পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মর্গ ত্যাগ করে। দীর্ঘ দুই ঘণ্টা মর্গের অভ্যন্তরে হিমঘরে থাকা জাপানী নাগরিকের লাশের গুলিবিদ্ধ হওয়া বিভিন্ন ক্ষত চিহ্ন গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করলেও এ ব্যাপারে অপেক্ষমাণ গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি জাপান থেকে আগত বিশেষজ্ঞরা। এমনকি জেলা, পুলিশ প্রশাসন ও রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষও কোনো কথা বলতে রাজি হননি। তবে জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, বুধবার যে কোনো সময় হোচি কুনিওর লাশ হস্তান্তর করা হতে পারে।

লাশ হস্তান্তরের সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। তবে কখন কীভাবে লাশ হস্তান্তর হবে তা জানাতে কেউই রাজি হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. জাকির হোসেন হাত জোড় করে ক্ষমা চেয়ে দ্রুত চলে যান।

প্রসঙ্গত, রংপুর নগরীর মাহিগঞ্জ নাচনিয়া বিলের কাছে আলুটারি এলাকায় শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হোচি কুনিও (৬৬) নামে জাপানী এক নাগরিককে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। গুলি তার বুক, ডান কাঁধ ও ডান হাতে লাগে। গুরুতর অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।