মেইন ম্যেনু

জামালপুরে শিশু হত্যায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

জামালপুরের চাঞ্চল্যকর শিশু মুস্তাসিম বিল্লাহ হত্যা মামলার রায়ে পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

বুধবার জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ওয়াহেদুজ্জামান শিকদার জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো- তোফায়েল আহমেদ হীরা, সোহেল রানা শিপন, আনোয়ার হোসেন, লোকমান আলী ও আইনুল হক।

জানা যায়, ২০০১ সালের ৩১ মে রাতে জামালপুর শহরের আমলাপাড়া এলাকার বাসিন্দা আমেরিকা প্রবাসী লুৎফর রহমানের ছয় বছরের শিশুপুত্র মুস্তাসিম বিল্লাহকে কোমল পানীয় খাওয়ানোর কথা বলে তার চাঁচাতো ভাই তোফায়েল আহমেদ হীরা বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে জামালপুর সদরের নান্দিনা খড়খড়িয়া এলাকায় নিয়ে দণ্ডপ্রাপ্তরা শিশু মুস্তাসিম বিল্লাহকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে একটি নির্মাণাধীন ভবনের মেঝেতে পুঁতে রাখে।

এ ঘটনায় পুলিশ তোফায়েল আহমেদ হীরাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অপহরণের ৭৯ দিন পর শিশু মুস্তাসিমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় শিশু মুস্তাসিমের খালু আশরাফ হোসেন বাদী হয়ে তোফায়েল আহমেদ হীরাসহ ছয়জনকে আসামীকরে জামালপুর থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে।

এ ঘটনায় তদন্ত শেষে পুলিশ চার্জশিট দাখিল করে। ২৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বুধবার জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ওয়াহেদুজ্জামান শিকদার জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন। রায়ে তোফায়েল আহমেদ হীরা, সোহেল রানা শিপন, আনোয়ার হোসেন, আইনুল হকের বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে তোফায়েল আহমেদ হীরা, সোহেল রানা শিপন, আনোয়ার হোসেন পলাতক রয়েছে। তাদের অনুপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করা হয়। মামলায় অপর আসামি ফারুক হোসেনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০০৩ সালে জামালপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে শিশু মুস্তাসিম বিল্লাহ অপহরণ মামলায় তোফায়েল আহমেদ হীরা, সোহেল রানা ও আনোয়ার হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। এই মামলায় জামিন পেয়ে তারা পলাতক রয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)