মেইন ম্যেনু

জালনোট চক্রের সদস্যদের ট্রাইব্যুনালে বিচার দাবি করলেন হাজী সেলিম

জালনোট চক্রের সদস্যদের আটকের সঙ্গে সঙ্গেই বিচারের আওতায় আনা এবং প্রয়োজনে এদের বিচারের জন্য ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি জানিয়েছেন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিম।

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

হাজী সেলিম বলেন, ‘এই চক্রটি ঈদ আসলেই বাজারে জালনোট ছাড়ে। বাজার জালনোটে সয়লাব হয়ে যায়। এদের ধরা হলেও বিচার হয় না।’ তাই প্রয়োজনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে তাৎক্ষণিক বিচার করার দাবি করেন তিনি।

হাজী সেলিম বলেন, ‘ঈদকে সামনে রেখে প্রতি বছরই কোটি কোটি টাকার জালনোটসহ আটক হচ্ছে নানা চক্র। কিন্তু এ চক্রের কোনো বিচার হচ্ছে না।’ এ বিষয়ে স্পিকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে একটি রুলিং দাবি করেন স্বতন্ত্র এ সাংসদ।

তিনি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে মিরপুর থেকে জালনোট চক্র আটক হয়েছে। এর আগে নারায়ণগঞ্জ থেকেও একটি চক্রকে আটক করা হয়। তবু অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে তারা। দুঃখজনক হলেও সত্য জালনোট চক্র ধরা পরলেও বিচার হয়নি।’

হাজী সেলিম বলেন, ‘ভয়াবহ এ অপরাধ দমনে বিচার হয় না বলেই তারা ছাড়া পেয়ে আবারো জালনোট তৈরি করে। জালনোট চক্র ধরা পরলে আইনজীবীরা বলেন, স্যার বিচার যা করার করেন, অন্তত জামিন দেন। পরে ম্যাজিস্ট্রেট তাদের ছেড়ে দেন। এরপর আবারো শুরু করে জালনোট তৈরির কাজ।’

তিনি বলেন, ‘গত শুক্রবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একটি প্রতিবেদন বের হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, জালনোট তৈরির সঙ্গে হুজি নেতারা জড়িত।’

জালনোট চক্রের বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত ৫ হাজার মামলা থাকলেও তার কোনো বিচার হয়নি বলেও অভিযোগ করেন হাজি সেলিম।