মেইন ম্যেনু

‘জিএসপি না দেওয়ার কারণ রাজনৈতিক’

রাজনৈতিক কারণে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে জিএসপি সুবিধা ফিরিয়ে দিচ্ছে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘আমরা সব শর্তই পূরণ করেছি। এরপরও তারা আমাদের জিএসপি সুবিধা ফেরত দিচ্ছে না।’

সচিবালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে তার সঙ্গে স্লোভেনিয়ার রাষ্ট্রদূত দারজা বাবদাস কারেতের সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে নিজ অফিসে এ কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। জিএসপি সুবিধা ফিরিয়ে না দিলেও বাংলাদেশে কোনো ক্ষতি হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

জিএসপি সুবিধা না দেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তোফায়েল আহমেদ বলেন, যেখানে বারাক ওবামা নাইরোবিতে বাংলাদেশের প্রশংসা করেছেন, সেখানে সামান্য জিএসপি সুবিধা না পাওয়ার তো কোন কারণ নেই। রাজনৈতিভাবে বাংলাদেশকে বিবেচনা করার কারণে হয়তো দিচ্ছে না।

তিনি বলেন, রানা প্লাজা ধ্বসের কারণে ২০১৩ সালে আমাদের জিএসপি সুবিধা স্থগিত করা হয়। তখন জিএসপি ফিরে পাওয়ায় ক্ষেত্রে আমাদের ১৬টি শর্ত দিয়েছিল। সব শর্তই বাংলাদেশ পুরণ করে। কিন্তু তারপরও এই জিএসপি দিচ্ছে না। বাংলাদেশকে তারা রাশিয়ার কাতারে দাঁড় করিয়েছে। অথচ পাকিস্তানে কিছুই নাই। তারপরও তাদের জিএসপি সুবিধা দেওয়া হয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এবার নতুন কোনো দেশকে জিএসপি সুবিধা দেওয়া হয়নি। বরং আগে যে ১২২ টা দেশ ছিল তাদেরই আবার এই সুবিধা দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, জিএসপি’র জন্য আমাদের অন্যের ওপর নির্ভরশীল হলে চলবে না। নিজেদের পায়ে দাঁড়াতে হবে।

কোরবানির সময় গরুর সঙ্কট হবে না বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, কোরবানির সময় ৭০ লাখ গরু দরকার, আছে ৬০ লাখ। আমরা নিজেরাও গরু উৎপাদনের প্রকল্প নিয়েছি। যাতে প্রকল্প থেকে গরুর বাকি চাহিদা পুরণ করা যায়।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুলাই থেকে বাংলাদেশ ছাড়া বিশ্বের ১২২টি দেশ ও অঞ্চলের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের অগ্রাধিকার বাণিজ্য সুবিধা (জিএসপি) পুনর্বহাল করেছে।