মেইন ম্যেনু

জিমনেশিয়ামে বিরত থাকুন এই পোশাক ও আনুষাঙ্গিক থেকে- নারী

শরীরকে সুস্থ রাখতে, আরো একটু আকর্ষণীয় ও সুন্দর করে তুলতে কম-বেশি সবাই চান। আর সেজন্যেই দিনকে দিন চারপাশে জিমনেশিয়ামের সংখ্যা বেড়ে চলেছে আর বাড়ছে সেখানে যোগ দেওয়া মানুষের সংখ্যাও। জিমনেশিয়াম ও সেখানকার পরিবেশ সম্পর্কে আমাদের সবারই ধারণা রয়েছে। তবে প্রথম প্রথম জিমনেশিয়ামে যাওয়ার ফলে অনভিজ্ঞতার কারণে অনেক সময় অনেকে এমন কিছু পোশাক ও আনুষাঙ্গিক জিনিসপত্র পরিধান করেন যেগুলো মোটেই সেখানকার উপযোগী নয়। যদিও পুরুষ ও নারীতে এ ক্ষেত্রে খুব বেশি ভেদাভেদ নেই। তবু চলুন দেখে আসি সেই পোশাক ও আনুষাঙ্গিকগুলোকে।

১. ১০০ শতাংশ সুতি কাপড়

এমনিতে সুতি কাপড় সবসময় আমাদের জন্যে আরামের প্রতীক হয়ে থাকলেও যখন আপনার কাপড় পুরোপুরি সুতি কাপড় দিয়ে তৈরি হবে সেটা আপনার ঘামকে শুকোতে দেবেনা। যেহেতু সুতি কাপড় পুরোটা ঘামকে নিজের ভেতরে টেনে নেয় আর শরীরের সাথে আটকে রাখ, সুতরাং কাপড় শুকোতে প্রচন্ড দেরী হয়। তৈরি হয় অস্বস্তিবোধ ও চর্মরোগের মতন বাজে সমস্যাগুলো।

২. শরীরচর্চার উপযোগী অন্তর্বাস

আপনার জিমনেশিয়ামের পুরো খাটাখাটনিটাই পানিতে যাবে যদি এমন কোন অন্তর্বাস পরিধান করেন যেটা কিনা অস্বস্তিকর। এক্ষেত্রে সবটা সময় আপনার মন পড়ে থাকবে অন্তর্বাসের দিকেই। তাই খেলার উপযোগী অন্তর্বাসগুলো কিনুন। এগুলো বিভিন্ন রকমের হয়ে থাকে। কোনটা সাধারণ যোগব্যয়াম বা দৌড়ের জন্যে উপযুক্ত। কোনটা একটু বেশি লাফ-ঝাপের জন্যে। তাই অন্তর্বাস কেনার আগে নিজের গঠন ও কাজের পরিমাণের কথা ভেবে নিন।

৩. অলঙ্কার

অলঙ্কার- সেটা হাতের ব্রেসলেট হোক কিংবা কানের দুল, সব রকমের আনুষাঙ্গিক জিনিসপত্র জিমনেশিয়ামের বাইরে রেখে আসুন। কারণ, এগুলো আপনার মনোযোগ শরীরচর্চা থেকে সরিয়ে দেয়। ফলে শরীরচর্চা ঠিকঠাকভাবে সম্পন্ন হয়না। পুরো কষ্টটাই নষ্ট হয়। তাই জিমনেশিয়ামে কোন আনুষাঙ্গিক- একদম না! এমনকি হেডফোন ব্যবহারের অভ্যাস যদি থেকে থাকে আপনার, তাহলে চেষ্টা করুন যেন জিমনেশিয়ামের ভেতরে ব্যবহৃত হেডফোনটি আকারে ছোট ও আরামদায়ক হয়।

৪. অতিরিক্ত ঢোলা বা চাপা পোশাক

শরীরচর্চার সময় মাঝামাঝি কোন স্পোর্টস ড্রেস নিয়ে নিন। কিংবা চেষ্টা করুন যেটাতে আপনি আরাম বোধ করেন তেমন কোন কাপড় শরীরে রাখার। অতিরিক্ত ঢোলা পোশাক পরিহার করুন। তবে তার মানে এই নয় যে, খুব চাপা কোন পোশাক পরতে হবে। খুব ঢোলা আর চাপা- এই দুই রকমের পোশাককেই এড়িয়ে চলুন।