মেইন ম্যেনু

জীবননগরে ট্রাক্টরের চাপায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত

শামীম রেজা, জেলা প্রতিনিধি, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গার জীবননগর হাসপাতালের সামনে মহাসড়কের ওপর ট্রাক্টরের চাপায় আরিফুল ইসলাম(২৭) নামের এক পুলিশ কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। ঘাতক ট্রাক্টর পুলিশ আটক করে থানায় নিয়েছেন। ঘাতক চালক পালিয়েছে। ঘটনাটির বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে সংঘটিত হয়েছে। এই ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্র জানান,জীবননগর বাসষ্ট্যান্ড থেকে বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে জান্নাতুল-মাওয়া এভিন নামের একটি ট্রাক্টর দর্শনা অভিমুখে যাচ্ছিল। অন্যদিকে পুলিশ কনস্টেবল আরিফুল ইসলাম একই সময়ে ওই সড়ক দিয়ে জীবননগর লক্ষীপুরের দিক থেকে মোটর সাইকেল যোগে জীবননগর বাজারের দিকে আসছিলেন। পুলিশ কনস্টেবল আরিফুল ইসলাম জীবননগর হাসপাতালের সামনে মহাসড়কে পৌছানো মাত্র উক্ত ট্রাক্টরের ধাক্কায় তিনি মারাত্মক আহত হন।

এ সময় পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে জরুরী বিভাগে ভর্তি করেন। পুলিশ কনস্টেবল আরিফুল ইসলামের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে রেফার করলে তিনি পার্শ্ববর্তী মহেশপুর সড়কে মারা যান।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্য্রের আবাসিক মেডিকেল অফিসার বলেন,কনস্টেবল আরিফুল ইসলামের মাথার ইনজুরি অত্যন্ত মারাত্মক এবং প্রচন্ড রক্তক্ষরণের ফলে তাকে বাঁচিয়ে রাখা সম্ভব হয়নি। অবস্থা বেগতিক দেখে আমরা তাকে যশোর রেফার করে দিই।

জীবননগর সিমান্ত ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ময়েন উদ্দিন বলেন,নিহত কনস্টেবল আরিফুল ইসলাম উপজেলা সিমান্ত ইউনিয়নের গয়েশপুর গ্রামের বকা গাইনের ছেলে। তার সার্ভিস বুক অনুযায়ী তিনি ২০১১ সালে পুলিশে যোগদান করেন। দাম্পত্য জীবনে তিনি দু’সন্তানের জনক। তিনি বর্তমানে ঝিনাইদহের হরিকুন্ডু থানার সোনাতনপুর পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি ছুটিতে বাড়ীতে এসেছেন।
জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,ঘটনার সাথে জড়িত ঘাতক ট্রাক্টর আটক করে থানায় আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে আপাতত: থানায় একটি অপমৃত মামলা করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্ত শেষে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।