মেইন ম্যেনু

জুতো থেকে দূর করুন দূর্গন্ধকে!

স্কুল, কলেজে ব্যবহৃত পা আটকানো কেডস কিংবা কাপড়ের জুতো থেকে শুরু করে পরবর্তী জীবনে পায়ে গলানো নানারকম আটকানো জুতো- সবগুলোতে একটা ব্যাপার সবসময়ই একই রকমভাবে থাকে। আর সেটি হচ্ছে দূর্গন্ধ! বিশেষ করে জুতোটি যদি হয় বর্তমান সময়ের বেশ জনপ্রিয় ব্যালেরিনা শু হয়, তাহলে তো আর কোন কথাই নেই। মাঝে মাঝে তো অবস্থাটা এতটাই বাজে হয়ে দাড়ায় যে, জুতো থেকে পা-টা বের করে আনতেও আতঙ্কে থাকতে হয়। আশপাশের মানুষেরা কিছু বুঝবে না তো! এই ভয়ে সবসময় প্রচন্ড গরমের ভেতরেও জুতোর ভেতরেই আটকে রাখতে হয় পা। কিন্তু আর নয়! আপনারই জন্যে আজ দেওয়া হল এমন একটি পদ্ধতি যেটি ব্যবহার করে খুব সহজেই নিজের জুতো থেকে দূর্হন্ধকে তাড়াতে পারবেন আপনি।

প্রথমেই নিজের দূর্গন্ধময় জুতোটি খুলে দেখে নিন ঠিক কোন উপকরণটি দিয়ে তৈরি হয়েছে সেটি। এরপর উপকরণের ওপর ভিত্তি করে ব্যবস্থা নিন। সবধরনের জুতো ধুয়ে ফেলা যায়না পানি দিয়ে। তাই যেগুলো ধোয়া যায় সেগুলো ধুয়ে ফেলুন। আর বাকীগুলো এমনিতেই খোলা রোদ-হাওয়ায় মেলে দিন।

এরপর কিছু কাগজের টুকরো হাতে নিন। হতে পারে সেটা কোন পত্রিকার কাগজ। কাগজগুলোকে দুটো ভাগে ভাগ করে নিন আর ভেজা ও শুকনো দু ধরনের জুতোর ভেতরেই পুরে দিন ( লিভস্ট্রং )। জুতোর ভেতরের দূর্গন্ধ দূর করতে বেশ কাজে লাগবে এটি আপনার। অপেক্ষা করুন জুতোর ভিজে ভাব না যাওয়া অব্দি।

খানিকটা বেকিং সোডা জুতোর ওপরে ছড়িয়ে দিন। ভেতরেও একইভাবে ছিটিয়ে দিন সেটা। এরপর জুতো জোড়াকে রাতভর একইভাবে রেখে দিন। সকালবেলায় জুতো থেকে সোডা ঝেড়ে ফেলে দিন। বেকিং সোডা গন্ধ দূর করতে সাহায্য করবে। তবে পরদিন আবার গন্ধ ফেরত আসলে একই কাজ করুন।

পরবর্তী উপায় হিসেবে জুতোকে খানিকটা সময় রেফ্রিজারেটরের ভেতরে রেখে দিন ( ম্যাশেবল )। কমপক্ষে এক থেকে দুই ঘন্টার জন্যে। তবে সাবধান! এরপর জুতো বের করে নিলেও জুতোর ওপরে পরা ভেজাভাব না দূর হওয়া পর্যন্ত সেটা পায়ে গলাবেন না।

জুতোর ভেতরে রাতের বেলা ঘুমোতে যাওয়ার আগে খানিকটা কমলালেবুর খোসাও কেটে গুঁজে দিতে পারেন আপনি। কমলালেবুর প্রচন্ড কড়া সুগন্ধ সারা রাতভর আপনার জুতোর দূর্গন্ধকে দূর করে দিতে সাহায্য করবে।

তবে এগুলোর কোনটায় কাজ না হলে বাড়তি সতর্কতা হিসেবে মোজা ব্যবহার করতে পারেন আপনি। সেই সাথে জুতোর সোল বদলে দিতে পারেন। এতে করে জুতোর দূর্গন্ধ একটু হলেও কমে যাবে। এছাড়াও অ্যালকোহল বা ক্যামিকেল স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন আপনি জুতোর ভেতরে।

এতে করে আর যাই হোক, বেশ নির্ভাবনায় আর আরামে আপনি কাটিয়ে দিতে পারবেন আপনার এই গরমকালের দিনগুলো!