মেইন ম্যেনু

জেনে নিন কলার খোসার কিছু বিস্ময়কর ব্যবহার

কলা খাবার পর এর খোসাটি কী করেন? নিশ্চই ফেলে দেন। কিন্তু এই কলার খোসারই আছে অভাবনীয় কিছু ব্যবহার। এতে আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, মিনারেল এবং ভিটামিনসহ আরও অনেক পুষ্টি উপাদান। যা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে নানা কাজে আসে। জেনে নেই, কলার খোসার সেই বিস্ময়কর ব্যবহারগুলো।

১। জুতো পলিশ
জুতো চকচকে করতে কলার খোসা ব্যবহার হয়। কলার খোসার ভিতরের নরম অংশ জুতোর উপর কিছুক্ষণ ঘষুন। তারপর একটি নরম কাপড় দিয়ে জুতো মুছে ফেলুন। কলার প্রাকৃতিক অয়েল লেদার চকচক করতে সাহায্য করে।

২। রুপার উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে
কিছু কলার খোসা এবং পানি ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি রুপার জিনিসের উপর ঘষুন। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। একটি শুকনো পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন।

৩। দাঁত সাদা করতে
হলদেটে দাঁত নিয়ে বিড়ম্বনার শেষ নেই। একটি কলার খোসার নরম অংশটি দিয়ে দাঁতের উপর কিছুক্ষণ ঘষুন। এটি প্রতিদিন ব্যবহার করুন। এভাবে একমাস ব্যবহার করুন। দেখবেন দাঁত অনেকটা সাদা হয়ে গেছে।

৪। ব্যথা প্রশমিত করতে
ব্যথার স্থানে সরাসরি কলার খোসা লাগিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। ৩০ মিনিট পর খোসাটি সরিয়ে ফেলুন। দেখবেন ব্যথা কিছুটা কমে গেছে। এছাড়া ভেজিটেবিল অয়েল এবং কলার খোসা একসাথে ব্যবহার করতে পারেন। এটিও ব্যথা কমিয়ে দেবে।

৫। ব্রণ রোধ করতে
ব্রণের উপর কলার খোসার নরম অংশটি ম্যাসাজ করুন। এটি প্রতিদিন ৫ মিনিট করুন। এক সপ্তাহের মধ্যে ফলাফল দেখতে পারবেন। ব্রণ ভালো না হওয়া পর্যন্ত এটি ব্যবহার করুন।

৬। ব্যথার কালো দাগ
ব্যথায় কালো হয়ে যাওয়ার দাগ দূর করতে কলার খোসা বেশ কার্যকর। কালো দাগের স্থানে কলার খোসা কিছুক্ষণ ঘষুন অথবা দাগের স্থানে কলার খোসা দিয়ে পেঁচিয়ে রাখুন। এটি সারারাত রাখুন।

৭। রিংকেল হ্রাস করতে
একটি ডিমের সাদা অংশ এবং একটি কলা খোসার ভিতরের অংশ একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি ত্বকে ব্যবহার করুন ৫ মিনিট। তারপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। কলার খোসা ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে।

সূত্র: স্টাইলক্রেজ






মন্তব্য চালু নেই