মেইন ম্যেনু

জেনে নিন ক্যারিয়ার গড়ার ১৩ উপায়

নিজের যা কিছু ভালো লাগে তাই নিয়ে কাজ করা কোনো সহজ বিষয় নয়। এজন্য প্রয়োজন সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নির্ধারণ ও সেই অনুযায়ী চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া। কিছু মানুষ রয়েছে যারা নিজের ভালোবাসার বিষয়ে ক্যারিয়ার চালিয়ে নিতে পারেন। অন্যরা এজন্য হাহুতাশ করেই যান। তবে কিছু পদক্ষেপ নিলে এ সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়। এ লেখায় রয়েছে তেমন কিছু উপায়। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস নিউজ ডেইলি।

১. লক্ষ্য নির্ধারণ করুন লক্ষ্যহীন নৌকা কোনো নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছানোর কথা ভাবতেও পারে না। তাই সবার আগে প্রয়োজন আপনার লক্ষ্য নির্ধারণ করা। আপনি যদি কোনো একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে আগ্রহী হন তাহলে সে বিষয়টিতে অবশ্যই মনোযোগী হবেন। কিন্তু তার আগে প্রয়োজন সে বিষয়টি নির্ধারণ করে নেওয়া। অন্যথায় আপনার সিদ্ধান্ত নিতে নিতেই বহু সময় পার হয়ে যাবে।

২. সময় দিন ক্যারিয়ারের কোনো একটি নির্দিষ্ট দিকে আপনি যেতে চান কিংবা পছন্দের কোনো একটি বিষয়ে দক্ষ হতে চান উভয় ক্ষেত্রেই আপনার রাতারাতি কোনো কিছু করা সম্ভব নয়। এক্ষেত্রে সবার আগে কিছু সময় নিয়ে বিষয়টি বিস্তারিত জেনে নিতে হবে। এরপর ধীরে ধীরে সে বিষয়ে অগ্রসর হতে হবে। এক্ষেত্রে সময় ব্যয় করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

৩. আগ্রহের বিষয়ে কাজ আপনার কোন বিষয়ে আগ্রহ আর সে বিষয়ে কিভাবে লাভবান হওয়া যায় তা নিয়ে চিন্তাভাবনা করুন। অনুসন্ধানের মাধ্যমে আপনার আগ্রহের বিষয় থেকেই বহু আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার বিষয় পাওয়া যাবে।

৪. বাস্তববাদী হোন বাস্তববাদী না হলে কোনো বিষয়েই সফলতা অর্জন সম্ভব নয়। তাই ক্যারিয়ারের ক্ষেত্রেও বাস্তববাদী হওয়া প্রয়োজন। যেমন আপনার এমন কোনো কাজে আগ্রহ, যে কাজের বর্তমানে কোনো মূল্যই নেই। এমন আগ্রহ আদতে কাজে লাগানো অবাস্তব হয়ে পড়তে পারে।

৫. প্রিয় মানুষদের কাছাকাছি থাকুন জীবনে চলার পথে বহু মানুষের সঙ্গে দেখা হবে, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সবার কাছাকাছি যে থাকতে হবে এমন কোনো কথা নেই। আপনার সফলতার জন্য সহায়তা করে এমন মানুষদের সঙ্গে থাকুন। এতে নানা বিষয়ে স্বস্তি হবে এবং সামনে এগিয়ে যাওয়া সহজ হবে।

৬. গুরু খুঁজে নিন বর্তমান সমাজে নিজের ভালোবাসার বিষয় নিয়ে সফল হওয়ার কলাকৌশল নিজে নিজে রপ্ত করা অনেক কঠিন। এক্ষেত্রে একজন সফল ব্যক্তির আন্তরিক পরামর্শ প্রয়োজন। আর এ কাজে উপযুক্ত ব্যক্তি খুঁজে নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

৭. পরিবেশ বিবেচনা করুন অনেক বিষয় আছে যা আপনার কাছে অস্বাচ্ছন্দ্যকর। এসব বিষয় আপনি এড়িয়ে চলতেই আগ্রহী। কিন্তু সব সময় এমন কাজ করলে তা আপনার পরীধি সীমিত করে দেবে। এ কারণে অস্বাচ্ছন্দ্যময় এসব বিষয়ও করতে শুরু করুন। এক্ষেত্রে পরিবেশ নিয়ে কোনো চিন্তা থাকলে তা আগেই ভেবে নিন। কিভাবে সমস্যা সমাধান করা যায় সে উপায় অনুসন্ধান করুন।

৮. অপেক্ষা নয় কোনো কাজের জন্য অপেক্ষা করতে করতে অনেকে জীবনটাই পার করে দেন। এক্ষেত্রে আপনি যদি সত্যিই কোনো কাজে আগ্রহী হন তাহলে সে কাজটি দ্রুত শুরু করে দিন। অন্যথায় তা আর করা নাও হতে পারে।

৯. সহজভাবে নিন অনেক কাজ আছে যা আপনার পক্ষে করা সম্ভব না বলেই মনে হতে পারে। এক্ষেত্রে নিজের প্রতি একটি উচ্চ ধারণা অনেকেরই কাজের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এক্ষেত্রে কাজের বিঘ্ন এড়াতে নাক উঁচু ভাব বদলানোর বিকল্প নেই। সবকিছু সহজভাবে নিন, কাজও সহজ হয়ে যাবে।

১০. সিদ্ধান্ত সফল করার উদ্যোগ নিন কোনো বিষয়ে একটি সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোনো মূল্য থাকে না যদি না আপনি সে সিদ্ধান্তটি সফল করার জন্য উদ্যোগ নেন। এক্ষেত্রে তাই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর তা সফল করার জন্য উদ্যোগ নিতে হবে।

১১. একাই সব কাজ নয় কোনো একটি কাজ একাই নিখুঁতভাবে করা সম্ভব হয় না। এক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট নিয়মের আওতায় কাজটি ভালোভাবে করতে হলে উপযুক্ত মানুষ ও প্রচেষ্টা প্রয়োজন হয়। আপনার কোনো শখের বিষয়েও একই কথা প্রযোজ্য।

১২. শিক্ষা নিন শিক্ষার মূল্য কখনোই শেষ হয় না। যে কোনো বিষয়ে কাজে নামার আগে সে বিষয়টিতে কিছু শিক্ষা নিয়ে নিন। এতে কাজটি সফল করা অনেক সহজ হয়ে যাবে।

১৩. আগ্রহী হোন আগ্রহ ছাড়া কোনো কাজ করলে তাতে সফলতার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়। কাজটি নিখুঁতভাবে শেষ করার জন্যও আগ্রহের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।