মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, চরম গরমে ট্যাঙ্কির পানি ঠাণ্ডা রাখার সহজ উপায়

গরম পরতে শুরু করেছে। সামনে আসছে আরও ভয়াবহ গরম। বৈশাখ-জৈষ্ঠ্যতে পাগল করার মতো গরম, ভাবতেই গা শিউরে উঠছে নিশ্চয়?

ধরুন, গরমের এতটাই তী্ব্রতা যে, ভাবছেন একটু গোসল করে ঠাণ্ডা হয়ে নিই। যে ভাবা সেই কাজ। এসে দাঁড়ালেন শাওয়ারের তলায়। নব ঘুরিয়েছেন কি মরেছেন! অমনি চিৎকার আগুন আগুন! ভরা দুপুরে ঝাঁঝরি বেয়ে ঠান্ডা ঠান্ডা কুল কুল বের করতে আপনার জিভ বেরিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সেই ঠাণ্ডা পানি সহসা আসবে?

আসবে। কি উপায়? বাজারে বিজ্ঞাপন দেখে যতই গরমে জল ঠান্ডা রাখার টেংকি কেনার কথা ভাবুন, তাতে সমধান তেমন ঘটবে বলে মনে হয় না। তার কারণ নিদারুণ নিদাঘ। তা হলে কি করতে হবে? যা করতে হবে তা আপনার হাতেই আছে। আপনাকেই এ জন্য একটু রিস্ক নিতে হবে। হতে হবে খানিকটা উদ্ভাবনী ক্ষমতাসম্পন্ন।

তাহলে দেখে নিন কি কি করতে হবে আপনাকে? কিভাবে কোন উপায়ে শীতল করতে পারবেন ট্যাঙ্কির পানি।

১। ফ্রিজ থেকে বরফ বের করে ছাদে উঠুন। টেংকির ঢাকনি খুলে ঢেলে দিন ভেতরে। ফ্রিজে তেমন পরিমাণে বরফ না পেলে বাজার থেকে কিনে আনুন।

২। টেংকির উপরে শেড দিয়েও ফল মিলছে না। সেই শেডের উন্নতি ঘটান। তার উপরে খড়ের ছাউনি দিন। সেই খড়ে দিনে তিন বার ঠান্ডা পানি স্প্রে করুন।

৩। যেভাবে অনেকে বোতলের পানি শীতল রাখেন সেই কেতায় টেংকির গায়ে ন্যাকড়া জড়ান তার পরে সেই ন্যাকড়াকে টোটাল ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে দিন কয়েক ঘণ্টা অন্তর।

৪। মযাগনাম সাইজের একটা হাতপাখা কিনুন, ঠাকুরবাড়িতে যেমনটি থাকে আর কি। তার পরে সেই পাখায় জল মাখিয়ে দুপুর বেলায় ছাদে উঠে টেংকির গায়ে হাওয়া করুন। করতেই থাকুন।

৫। সকাল এগারোটা থেকে ছাদে উঠে মই লাগিয়ে টেংকির গায়ে লাগান। মইয়ের ডগায় উঠিন একটা গার্ডেন আম্ব্রেলা ধরে দাঁড়িয়ে থাকুন বেলা দু’টো পর্যন্ত, বাড়ির সকলের যতক্ষণ না স্নান সারা হয়।

এগুলো করতে যদি অসমর্থ হন, তবে গরম জল গায়ে ঢেলে ফোস্কা ফেলুন আর গালাগাল করুন টেংকির বাপকে।