মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, ফেসবুক ব্লক থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায়

আজকাল ফেসবুকে গ্রাহকের অভাব নেই। প্রতিদিনই বাড়ছে ফেসবুক গ্রাহক। কেউ জেনে, কেউ না জেনেই হুটহাট করে একটি একাউন্ট খুলে শুরু করে দেন ফেসবুকিং। কিন্তু তার জানা নেই ফেসবুক নীতিমালা।

পৃথিবীর সব কিছুরই একটা নিয়ম থাকে। নিয়মের মধ্যেই চলে সব কিছু। তার ব্যতিক্রম নয় ফেসবুকও। তবে নিয়ম ভঙ্গ করলে অন্যত্র থেকে হয় তো আপনি পাড় পেতে পারেন। কিন্তু ফেসবুক আপনাকে একচুলও ছাড় দিবে না।

ধরুন আপনি ফেসবুক চালাচ্ছেন। বেশ ভালোই চলছে। কিন্তু হঠাৎ করে দেখলেন যত্তসব অদ্ভুত কাণ্ড ঘটছে আপনার সাথে। যেমন, আপনি পোস্ট করতে পারছেন না, কাউকে ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট পাঠাতে পারছেন না, কারো পোস্টে লাইক বা কমেন্টসও করতে পারছেন!

এসব দেখে আপনি সত্যিই খুব হতাশ। কিন্তু বুঝতেও পারছেন না এমনটা কেন ঘটছে। কিন্তু আপনাকে ফেসবুক ব্লক করে দিয়েছে। কোন না কোন নিয়ম ভঙ্গ করার কারণে আপনি ব্লক খেয়েছেন। তাহলে কি কি কারণে ফেসবুক আপনাকে ব্লক করতে পারে? তাহলে চলুন জেনে নিই সাধারণত কি কি কারণে ফেসবুক আপনাকে ব্লক করতে পারে।

প্রথমে মনে রাখবেন, কমেন্টে জাতিগত, লিঙ্গগত বৈষম্য বা গালাগাল ব্যবহার কিন্তু ফেসবুক সমর্থন করে না। তাই কমেন্ট নিয়ে রিপোর্ট হলে ফেসবুক কখনও জাতিগত, লিঙ্গগত বৈষম্যযুক্ত কমেন্ট বরদাস্ত করে না। ধর্মীয় ভাবাবেগে সুড়সুড়ি দেয়া কমেন্টের ক্ষেত্রেও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়। তাই কমেন্ট করার সময় সাবধানী হোন।

১। দেখা যাচ্ছে আপনি সারাদিন ফেসবুককে একটা দোকান ভেবে খুলে বসে আছেন। এরপরও আপনার বন্ধু বা বান্ধবী বাড়ছে না। এ নিয়ে আপনিও হতাশ। তাই বন্ধুর সংখ্যা বাড়াতে একদিন যত সম্ভব ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট পাঠিয়ে দিলেন! ব্যস, এখানেই আপনার গ্লপটা ধরে ফেলবে ফেসবুক। তারা সুন্দরভাবে আপনার অ্যাকাউন্টটি ব্লক করেও দিবে।

অাপনার জেনে রাখা উচিৎ যে, এক দিনে নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষকেই আপনি ফ্রেন্ড রিক্যুয়েস্ট পাঠাতে পারেন। তা অতিক্রম করলে ব্যবস্থা নেয় ফেসবুক। তাই সাবধান।

২। আবার দেখুন অনেকে একবার একটা পোস্ট করলেন। কিন্তু সেখানে লাইক বা কমেন্টস পড়েনি। তাই সেটি ডিলিট করে আবারও একই পোস্ট করা হল। এমন ভাবে যদি দিনের মধ্যে বেশ কয়েকবার একই পোস্ট শেয়ার করেন, তবে নিশ্চিত আপনি ব্লক হয়ে যেতে পারেন।

ভাবছেন কেন? আসলে ফেসবুক একই মেসেজ বার বার দেখলে তা স্প্যাম বলেই মনে করে। তাই তারা এ পন্থা অবলম্বন করে। আবার কোনও নির্দিষ্ট পেজে গিয়েও যদি একই মেসেজ বার বার পোস্ট করেন, তা হলেও আপনার ক্ষেত্রে একই ঘটনা ঘটবে।

৩। একটু খেয়াল করলেই দেখতে পারবেন যে, ফেসবুকে অনেকেই আছেন লাইকের জন্য পাগল হয়ে থাকেন। একটি পোস্টে অন্তত ৫০০ লাইক, ২০টা কমেন্ট না হলে তাদের মনই ভরে না। তাই তারা সোজা রাস্তায় না গিয়ে একটু বাঁকা রাস্তায় গিয়েই এই লাইক কমেন্টেস ধান্ধা করে থাকেন।

যেমন অনেক পেজ আছে যার মাধ্যমে লাইক কেনা যায় বা বাড়ানো যায়। সেটা করে সকলকে আপনি চমকেও দিলেন! তবে আপনি অন্যকে চমকে দিয়ে বাহদুর হয়ে গেছেন ভাববেন না। এর সঙ্গে কিন্তু আপনিও চমকে যেতে পারেন। তবে প্রথমে আপনাকে ওয়ার্নিং দিয়ে ছেড়ে দেয়া হবে। কিন্তু একই ভুল বার বার করলে আপনার কপালে কিন্ত নিশ্চিত ব্লক আছে।