মেইন ম্যেনু

জেনে নিন মুখে দুর্গন্ধের কারণ ও প্রতিকার

ঘুম ঢুলু ঢুলু চোখ কিংবা বড়দের বকা খেয়ে দু’বেলা ব্রাশ আমরা প্রায় সবাই করি। নিয়মিত দাঁত মাজলেও অনেকেরই মুখে থাকে বাজে গন্ধ। হাজার চেষ্টার পরেও দেখা যাচ্ছে কোন কিছুতেই এর প্রতিকার মিলছে না। তাহলে কি ব্রাশ করাই মুখের বাজে গন্ধ থেকে প্রতিকারের উপায় নয়? প্রকৃতপক্ষে সারাদিনের খাবার, অতিরক্ত চা বা কফি পান কারণ হতে পারে আপনার মুখের বাজে গন্ধের। চলুন জেনে নেই মুখে বাজে গন্ধের কিছু কারণ এবং তার প্রতিকার।

সকালের নাস্তা নিয়মিত করুন
দিনের শুরুতে সকালের নাস্তা অনেক গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এটি একদিকে যেমন শক্তি জোগায় তেমনি অন্যদিকে মুখের বাজে গন্ধকে রাখে দূরে। সকালে করা দাঁত ব্রাশও যা পারে না। প্রকৃতপক্ষে সকালের নাস্তা আমাদের মুখের লালা গ্রন্থিকে কাজ করতে সাহায্য করে। এটি মুখের ভেতরের অংশ ভেজা রাখে, যা মুখে বাজে গন্ধ সৃষ্টি হতে দেয় না।

কফি পান করা
মুখে বাজে গন্ধের অন্যতম একটি কারণ হচ্ছে অতিরিক্ত কফি পান। অনেকে সকালে ঘুম থেকে উঠেই কফির কাপে চুমুক দেন, যা আপনার মুখের বাজে গন্ধের জন্য যথেষ্ট।

খারাপ ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ
আপনি জানলে হয়তো অবাক হবেন যে, আপনার মুখ ব্যাকটেরিয়ার অন্যতম আবাসস্থল। আর এটির মাঝে থাকা খারাপ ব্যাকটেরিয়াগুলো মুখে বাজে গন্ধের কারণ। আর এদের সবচেয়ে বেশি বসবাসের জায়গা হচ্ছে আপনার জিহ্বা। আর এই ব্যাকটেরিয়া থেকে মুক্তির জন্য দু’বেলা ব্রাশের পাশাপাশি খাবার পর পর ব্রাশ করুন।

নাকডাকা
কিছু মানুষের মাঝে নাকডাকার অভ্যাস রয়েছে। যদি এটি আপনার মাঝেও থেকে থাকে তবে আপনারও সমান ঝুঁকি রয়েছে মুখে বাজে গন্ধে আক্রান্ত হওয়ার। নাকডাকার ফলে একটি দীর্ঘ সময় মুখ খোলা থাকে এবং তা দিয়ে নিশ্বাস নেয়া হয়। এতে মুখের ভেতরের অংশ শুকিয়ে যায় যা মুখে বাজে গন্ধের কারণ।

অতিরিক্ত প্রোটিন সেবন
অতিরিক্ত প্রোটিন সেবন মুখে বাজে গন্ধের কারণ। প্রোটিন শরীরের জন্য ভালো হলেও অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো না। এছাড়া যারা ডায়েট করছেন, অল্প প্রোটিন জাতীয় খাবার খাচ্ছেন তাদেরও একই সমস্যা হতে পারে, তাই পরিমিত প্রোটিন জাতীয় খাবার খাওয়া প্রয়োজন।

নিয়মিত দাঁতের ডাক্তার না দেখানো
অনেকেই মনে করেন- দাঁতের যত্ন কেবল দু’বেলা ব্রাশ করা। যদি আপনিও এমনটি ভেবে থাকেন তবে তা এক্ষুণি মাথা থেকে ঝেরে ফেলুন। আপনার দাঁতে সমস্যা না হলেও দাঁতের ডাক্তার দেখানো বাঞ্ছনীয়। তাই রুটিনমাফিক দাঁতের ডাক্তার দেখান।

ফল-মূল কম খাওয়া
আপনার পরিবারের বড়রা হয়তো সবসময় আপনাকে বলে সবুজ শাক-সবজি আর ফল-মূল খেতে আর আপনি বরাবরের মতই তা থেকে পালিয়ে বেড়ান। যদি এমনটি হয়ে থাকে তবে আজই এই অভ্যাস ত্যাগ করুন। কারণ মৌসুমী ফল এবং সবজি আপনার মুখের লালা গ্রন্থিকে শুকোতে দেয় না। যা আপনার মুখের খারাপ ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে এবং আপনাকে সবসময় মুখের বাজে গন্ধ থেকে মুক্ত রাখে।