মেইন ম্যেনু

জেনে নিন রাগ নিয়ন্ত্রণের কিছু কৌশল

আশেপাশের মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হওয়ার জন্য উত্তপ্ত মেজাজই যথেষ্ট। রাগ মুহূর্তেই দুই বন্ধুকে দূরে ঠেলে দিতে পারে, বাড়িয়ে দিতে পারে মনের দূরত্ব। হঠাৎ আপনাকে একা করে দিতেও রাগই যথেষ্ট। হুটহাট করে রেগে যাওয়া, রাগের বসে অপ্রাসঙ্গিক কথা বলা, অনাকাঙ্ক্ষিত কাজ করে ফেলা- সবকিছুই হতে পারে আপনার জন্য ক্ষতির কারণ। অযথা রাগ না করে ঠাণ্ডা মাথায় ভাবলে অনেক সমস্যারই সমাধান করা যায় সহজে। কিন্তু ইচ্ছা করলেই তো আর রাগ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়। মেজাজ চরমে উঠলে কোনো কিছুই মাথায় থাকে না। তাই রাগের ক্ষতিকর দিক জেনে নিয়ন্ত্রণের উপযুক্ত কৌশল অবলম্বন করুন।

* হঠাৎ রেগে যাওয়া মনকে শান্ত রাখতে এক থেকে দশ পর্যন্ত উল্টো করে গুনতে পারেন। তাহলে মস্তিষ্ককে কিছুটা অন্যদিকে ব্যস্ত রাখা যাবে।

* হুট করে কোনো কথা বা কাজ করে বসবেন না, সময় নিন। প্রয়োজন হলে রাগের মানুষটির সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বন্ধ রাখুন অথবা রাগের কারণটি থেকে নিজের মনকে অন্যদিকে সরিয়ে নিন।

* মন শান্ত হলে আপনার রাগের কারণগুলো তার সামনে তুলে ধরুন। ততক্ষণে তার মাথাও ঠাণ্ডা হয়ে যাবে। দুজনই দজনের কথা ভালোভাবে বুঝতে পারবে।

* রাগ নিয়ন্ত্রণের অপর একটি কার্যকরী উপায় হলো গোসল করা। ঠাণ্ডা পানিতে ভালো করে নিজের গোসল সেরে নিন। দেখবেন রাগ অনেকটাই দূর হয়ে গেছে।

* ব্যায়াম করতে পারেন, অথবা কিছুটা পথ হাঁটতে পারেন।

* যখন স্বাভাবিক মুডে থাকবেন তখন ঠাণ্ডা মাথায় চিন্তা করে রাগের কারণ বের করার চেষ্টা করুন। ভালো ফল পাবেন।

* নিজেকে নিয়ে বেশি হিসাব করতে গেলে রাগ আরও বাড়বে, তাই তাত্ক্ষণিক ব্যাপারটা মেনে নিলে সমস্যা অনেকটা কমে যায়।

* টেনশন কমানোর জন্য খানিকটা হাসি ঠাট্টা করা যেতে পারে, তাতে মনটা হালকা হয়ে যায়।

* সবচেয়ে ভালো উপায় হলো মেডিটেশন।