মেইন ম্যেনু

জেলে বসেই পিএইচডি শেষ করলেন এক খুনী!

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসিক হুসেন ফাকতু ২০ বছর ধরে জেলবন্দি। জেলে বসেই সেরে ফেলেছেন পিএইচডি। তার গবেষণার বিষয় ছিল ইসলামিক স্টাডিজ। আসিক ফাকতু ভারতের সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন করেছিলেন তার যাবজ্জীবন সাজা পুনর্বিবেচনার জন্য। কিন্তু তার আবেদন আদালত নাকচ করে দিয়েছে।

জানা গেছে, ১৯৯২ সালে মানবাধিকার কর্মী হৃদয় নাথ ওয়াংচুকে হত্যায় যুক্ত থাকার অপরাধে ১৯৯৩ সাল থেকে জেল খাটছেন আসিক ফাকতু।

অবশ্য ২০০১ সালে জম্মু আদালত ফাকতুকে মুক্তি দিলেও সুপ্রিম কোর্ট ওই রায় বাতিল করে পুনরায় তাকে কারাগারে পাঠিয়েছিল।

ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী যোদ্ধা আসিক হুসেন ফাকতুই একমাত্র কাশ্মীরী, যিনি খুনের মামলায় যাবজ্জীবন সাজা ভোগ করার সময় পিএইচডি সম্পন্ন করেছেন।

কাশ্মীর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ আসিক ফাকতুকে এই পিএইচডি ডিগ্রি দিয়েছে।

এমনকি লেখাপড়ার ক্ষেত্রে আসিক ফাকতুর সাহায্য নিয়েই স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের গণ্ডি পেরিয়েছেন অন্তত ১২৫ জন ছাত্রছাত্রী।