মেইন ম্যেনু

প্রধানমন্ত্রীকে গয়েশ্বর

জোয়ার দেখেছেন, ভাটা দেখেননি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক ভাটা দেখানো হবে।’

রোববার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সমবায় দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আপনি আওয়ামী লীগের ক্ষমতায় যাওয়ার জোয়ার দেখেছেন কিন্তু ভাটা দেখেননি। তাই এবার আপনি ভাটা দেখার জন্য অপেক্ষা করুন।’

সমবায় দলের পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘হাসিনা নিজেও জানেন না তিনি কত সময় ক্ষমতায় থাকবে। তাই সব সময় ২০১৯ সালের কথা বলেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের অধিকার তাদের ফিরে দিন। জনগণকে সিদ্ধান্ত নিতে দিন, তারা কাদের নিয়ে রাষ্ট্র পরিচালনা করবে। আর আপনার যদি ন্যূনতম লজ্জাবোধ থাকে তাহলে জনগণের কথা আর মুখ দিয়ে উচ্চারণ করবেন না।’

২০১৯ সালের আগে কোনো নির্বাচন নয়- প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘আপনি নিজেই যানেন না কতদিন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকবে। তাই আমাদের ২০১৯, ২০২০ ও ২০২৫ সাল দেখিয়ে কোনো লাভ হবে না।’

রাস্তার বেহাল দশার মত বিএনপি অবস্থা- সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় গয়েশ্বর বলেন, ‘রাস্তার বেহাল দশা কিনা তা বলতে পারবো না। তবে বর্তমান ক্ষমতাসীনরা বাংলাদেশ ও গণতন্ত্রের আজ বেহাল দশা করেছে।’

ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘আপনিতো অফিস করেন না। কিন্তু কিছু গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের নিয়ে প্রতিদিন ছবি তোলেন এবং কথা বলেন। যাতে দেশ ও জাতির কোনো উপকার হয় না। তাই ডায়লগ বন্ধ করে পদত্যাগ করুন। আর জনগণকে বলুন, সরি, আমি পারিনি।’

সমবায় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সারাদেশে যদি সমবায় গড়ে উঠতো তাহলে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থার আজ এ অবস্থা হতো না। দেশে কোনো বেকারত্ব এবং চাকরির জন্য কাউকে বিদেশেও যেতে হত না।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ নূর আফরোজ জ্যোতির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন প্রমুখ।