মেইন ম্যেনু

জ্বর হলে যা করা উচিত নয়

বেশি গরম, বৃষ্টি আবার রাতের শেষভাগে হঠাৎ ঠাণ্ডা আবহাওয়ার এই খেলায় অনেকেই তাল মেলাতে পারছেন না। কেউ জ্বরে, আর কেউ অসুস্থ হলে আমরা সবাই বনে যায় চিকিৎসক।

দেখা যাবে খাদ্য তালিকা থেকে যে খাবারগুলো বাদ দিচ্ছি হয়তো সেটাই ওই অসুখের জন্য আদর্শ পথ্য। আসুন জেনে নেই;

দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার

ঠাণ্ডা লাগলে দুধ খাওয়ার ব্যাপারে অনেকের আপত্তি না থাকলেও এখনওনো পর্যন্ত অনেকেই মনে করেন, সর্দিতে দই খাওয়া যাবে না। অনেকের বিশ্বাস দই ঠাণ্ডা খাবার। এটি খেলে কাশি বাড়তে পারে। তবে এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। ঠাণ্ডা, কাশি বা জ্বরে দই খাওয়া নিরাপদ। তবে দই ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হলে খাওয়ার কিছুক্ষণ আগে বের করে রেখে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় এলে খান।

ঠাণ্ডায় ফল নয়;

অনেকেই অন্ধভাবে বিশ্বাস করেন ঠাণ্ডা বা কাশিতে কোনো ফলই খাওয়া যাবে না। বর্তমানে এ ধারণাটি ভুল প্রমাণিত হয়েছে। অথচ বৈজ্ঞানিকভাবে এটি প্রমাণিত, ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ ফল ঠাণ্ডা কাশি দূর করে।

জ্বর হলে গোসল;

জ্বর হলে গোসল করা যাবে না এই ধারণা থেকে অবশ্য আজকাল অনেকেই সরে এসেছেন। এখন চিকিৎসকরা বলেন, জ্বর হলে গোসল করতে হবে। সে ক্ষেত্রে একটু গরম পানিতে গোসল সেরে নেয়া ভালো।






মন্তব্য চালু নেই