মেইন ম্যেনু

জ্যামে আটকে থাকা সময়টা কাটান চমৎকার ৭টি উপায়ে

অফিসে যাবার জন্য রাস্তায় বের হলেন আর মেজাজটা গেলো বিগড়ে। কেন? রাস্তায় আঁটসাঁট জ্যাম, এক ইঞ্চি এক ইঞ্চি করে চলছে গাড়িঘোড়া। এমন ঘটনা প্রতি দিনই ঘটছে আর আমাদের ঘণ্টার পর ঘন্টা অমূল্য সময় ব্যয় হচ্ছে অনর্থক। এই সময়টাকে যদি ভালো কোনো কাজে ব্যয় কড়া যায় তাহলে কেমন হয়? চলুন দেখে নেই জ্যামে আটকা পড়া সময়টাকে ভালোভাবে কাটানোর কিছু উপায়।

১) নতুন কিছু শিখুন

আইটিউনে বেশ কিছু ভালো ভালো ইউনিভার্সিটির ফ্রি কোর্স পাওয়া যায়। আপনি সেগুলো শুনতে পারেন এই সময়ে। কিছু ভিডিও টিউটোরিয়ালও দেখে ফেলতে পারেন। আপনার ফোন এতটা উন্নত না হলে নাহয় একটা বইই কিনে ফেললেন। রান্না, ভাষা বা অন্যান্য স্কিল শেখার বই পাওয়া যায়। জ্যামের এই সময়টুকু সেই বইটা পড়ে কাটিয়ে দিতে পারেন।

২) মেডিটেশন করতে পারেন

হর্নের প্যাঁ-পোঁ শব্দে কান পাতাই দায়, এর মাঝে মেডিটেশন! তবে মেডিটেশনের অভ্যাস থাকলে এই সময়ে আপনি চোখ বন্ধ করে ধ্যান করতে পারেন কিছুটা, প্রাণায়াম প্র্যাকটিস করতে পারেন। তবে আপনি যদি গাড়ির চালক হয়ে থাকেন তবে এই কাজটি করা যাবে না।

৩) তৈরি করুন কাজের তালিকা

হাত খালি থাকলে হাতে, নয়তো মনে মনেই করে ফেলুন একটি টু-ডু লিস্ট। দিনের সবচাইতে বড় কাজটা কী? অফিসে ঢুকেই প্রথমে কোন কাজটি করতে হবে? এটা ভেবে নিয়ে সারাদিন কী করতে হবে সেটা ঠিক করে ফেলুন। বড় কোনো সমস্যার সমাধানটা নিয়েও চিন্তা করুন। দেখবেন চট করে সমাধান পেয়েও যেতে পারেন।

৪) ফোন করুন

দরকারি কোনো ফোন কোল থাকলে সেটা সেরে ফেলতে পারেন। মা-কে ফোন দিতে পারেন। অথবা এমন কোনো বন্ধুকে কোল দিতে পারেন যার সাথে অনেকদিন যাবত কথা হয়না।

৫) বই পড়ুন

এই কাজটা করতে পারেন বাস বা রিকশায় বসে। আশেপাশে যতো ঝামেলাই থাকুক না কেন, গল্পের বই পড়ে সময়টা দিব্যি কেটে যাবে। বুঝতেও পারবেন না কখন জ্যামে আটকে আধা ঘন্টা চলে গেছে।

৬) গান শুনুন

বিভিন্ন রেডিও স্টেশনে সারাক্ষণই গান বাজতে থাকে। সেগুলো শুনতে পারেন। অথবা নিজের ফোনের প্লে-লিস্টের গানগুলোও শুনতে পারেন এই সময়ে।

৭) একটু ঘুমিয়ে নিন

আপনার সাথে যদি কেউ থাকে, পরিবারের কেউ, বন্ধু বা কলিগ, তাহলে আপনি নিশ্চিন্তে একটু ঘুমিয়ে নিতে পারেন। তবে একা হলে না ঘুমানোই ভালো। তাতে পকেটমার হবার ভয়টা বেশি থাকে।