মেইন ম্যেনু

জয় হত্যা পরিকল্পনায় বিএনপির লোকজন জড়িত

সজীব ওয়াজেদ জয় অপহরণ ও হত্যা কল্পনায় বিএনপির লোকজন জড়িত। তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের তদন্তে শফিক রেহমান ও মাহমুদুর রহমানের নাম এসেছে বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (১৮ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

১৭ এপ্রিল মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। এতে সভাপতিত্ব করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী।

জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক শফিক রেহমান গ্রেপ্তার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জয়কে যুক্তরাষ্ট্রে অপহরণ ও হত্যা পরিকল্পনায় বিএনিপর লোকজন জড়িত। তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের তদেন্ত শফিক রেহমান এবং মাহমুদুর রমানের নাম এসেছে। তবে বিচার পাওয়ার অধিকার সবার আছে।

ব্লগার হত্যা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মুক্তচিন্তার নামে যদি বিকৃত মানসিকতার কথাবার্তা হয় তাহলে সেটা মুক্তচিন্তা নয়। ধর্ম নিয়ে যদি কারো অন্য ভাবনা থাকে তাহলে তার বিচার আল্লাহ করবেন। তাকে হত্যার করার অধিকার কাউকে দেয়া হয়নি।

গত শনিবার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক শফিক রেহমানকে (৮২) তার বাসা থেকে ধরে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ। পরে তাকে সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যা চেষ্টার মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। পরে আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকেও এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, গত বছরের সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত ‘বাংলাদেশের একজন খ্যাতনামা নাগরিকের’ ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ঘুষ নেয়ার দায়ের এফবিআই এর সাবেক এক এজেন্টকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন। আদালত রায়ে বাংলাদেশের ওই নাগরিকের নাম পরিচয় উল্লেখ না করলেও ধারণা করা হয় তিনি সজীব ওয়াজেদ জয়।



« (পূর্বের সংবাদ)