মেইন ম্যেনু

ঝালকাঠিতে ফেন্সিডিলসহ যুবলীগ নেতা আটক

ঝালকাঠির দপদপিয়া ফেরীঘাট সংলগ্ন এলাকার একটি অবৈধ ফেন্সিডিল কারখানায় অভিযান চালিয়ে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নূর আলম খান (৩৮) কে গ্রেপ্তার ও তৈরীকৃত ৩শ ২০ বোতল সহ ২০ লিটার তরল ফেন্সিড্রিল উদ্ধার করেছে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর টহল দল।

মঙ্গলবার গভীর রাতে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলাধীন দপদপিয়া ফেরীঘাট সংলগ্ন ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে র‌্যাবের সদস্যরা তাকে আটক করে। বুধবার দুপুরে নলছিটি থানা পুলিশ গ্রেপ্তারকৃত নুরআলম কে ঝালকাঠি আদালতে সোপর্দ করলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরন করেন।

অভিযানের নেতৃত্ব দেয়া বরিশাল র‌্যাব-৮ এর ডিএডি আঃ রহিম জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি টিম দপদপিয়া ফেরীঘাট এলাকার ভাড়া বাসা থেকে মাদক ব্যবসায়ী নূর আলম খানকে আটক করে। পরে জিজ্ঞাসাবাদ কালে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাসার পার্শবর্তী নলছিটির ঠিকাদার ও ব্যবসায়ী মাহফুজ খানের মাছের ঘেরের মধ্য থেকে তৈরীকৃত ৩শ ২০ বোতল ও ২০ লিটার তরল ফেন্সিড্রিল উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতে নলছিটি থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

নলছিটি থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম মাকসুদুর রহমান জানায়, উপজেলার দপদপিয়া ইনিয়নের ওহাব খানের পুত্র নূর আলম খান কে বরিশাল র‌্যাব-৮ আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় বরিশাল র‌্যাব-৮ এর ডিএডি আঃ রহিম বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা (নং-২৩) দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নূর আলম খান দীর্গ দিন ধরে ক্ষমাশীন দলের নাম ভাংগিয়ে দপদপিয়া জিরো পয়েন্ট এলাকায় মাদক ব্যবসা সহ বিভিন্ন রকম অপরাধ মূলক কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিল। সরকার দলের দাপট ও নলছিটির ঠিকাদার ও ব্যবসায়ী মাহফুজ খানের লোক হিসাবে স্থানীয়রা কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস পেতনা।