মেইন ম্যেনু

ঝাড়ু দিলেন ঐশ্বরিয়া

‘ভারতের অমৃতসরে স্বর্ণমন্দিরের মেঝে ঝাড়ু দিতে দেখা গেছে বচ্চন বাড়ির বউ ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে।’ সম্প্রতি এমন খবরই প্রকাশিত হয়েছে ভারতের কয়েকটি গণমাধ্যমে। মন্দিরের উপাসকদের দলে যোগ দিয়ে মন্দিরের মেঝে ঝাড়ু দিয়েছেন ৪২ বছর বয়সী এই বলিউড সুপারস্টার। এ ছাড়া তিনি সেখানে রান্না করেছেন, এঁটো থালা-বাসনও ধুয়েছেন।

সাফল্যের জন্য মানুষ কত কিছুই তো করে। সেখানে পূজা করা, মানত করা কোনো ব্যাপারই নয়। তাছাড়া অমিতাভের পরিবার এমনিতেও ধর্মে বিশ্বাসী। তারা নিয়মিত মন্দিরে যান। সুতরাং এটাও হয়তো তেমনই একটা কিছু হবে। পাঠক, আপনি হয়তো এমনটাই ভাবছেন। কিন্তু বিষয় তা নয়।

আসল ঘটনা হলো, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন বর্তমানে ‘সর্বজিত’ ছবির শুটিংয়ে পাঞ্জাবের অমৃতসরে আছেন। উমাঙ্গ কাপুরের পরিচালনায় বাস্তব ঘটনার ওপর নির্মিত এই ছবিতে তিনি অভিনয় করছেন সর্বজিতের বোনের চরিত্রে। চরিত্রের প্রয়োজনে তাঁকে একজন সাধারণ পাঞ্জাবি নারীর বেশভূষায় অভিনয় করতে হয়েছে। সম্প্রতি এ ছবির শুটিংয়ে তাঁকে মন্দিরের মেঝে ঝাড়ু দেওয়ার পাশাপাশি থালাবাসনও ধুতে হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ছবির একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে, মন্দির কর্তৃপক্ষকে ঐশ্বরিয়া অনুরোধ করেন যে তাঁকে যেন এ কাজগুলো ঠিকঠাকভাবে শিখিয়ে দেওয়া হয়। যেন তিনি এই গুরুদায়িত্ব পালনে কোনো ভুল না করে ফেলেন! একেই বলে নিষ্ঠা!