মেইন ম্যেনু

ঝিনাইগাতী সীমান্তে মৃত হাতি উদ্ধার

মুহাম্মদ আবু হেলাল, ঝিনাইগাতী : শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার সীমান্তে তাওয়াকুচা গ্রামে একটি মৃত হাতিকে (স্ত্রী হাতি) উদ্ধার করা হয়েছে। ১৭অক্টোবর সোমবার ভোর মৃত অবস্থায় ওই হাতিটিকে একটি জঙ্গলে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখতে পান বলে জানা যায়। এনিয়ে চলতি মাসের ২টি মৃত হাতি উদ্ধার হলো। এর আগে চলতি মাসের ১লা অক্টোবর উপজেলার পানবর গ্রামে অন্য আরেকটি হাতিকে উদ্ধার করে।

মৃত হাতিটি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, বন বিভাগের ঝিনাইগাতীর তাওয়াকুচা বিট কর্মকর্তা মো. আশরাফুল আলম। তবে কিভাবে হাতিটি মারা যায়, তা তিনি জানাতে পারেননি। তিনি বলেন, ময়নাদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা যায়, বেশ কিছুদিন যাবত কাংশা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় বন্য হাতির তান্ডব বৃদ্ধি এবং দেড় মাসে নারী-পুরুষ ও আদিবাসীসহ ৯জন মানুষের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এতে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর পাতা বিদ্যুতের ফাঁদে বন্য হাতিটি মারা যেতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

কাংশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হকসহ গ্রামবাসীরা জানায়, প্রতিদিনের ন্যায় শতাধিক বন্যহাতি তাওয়াকুচা গ্রামে তান্ডব লীলা চালায়। এ পর্যন্ত বন্যহাতির দল প্রায় ১০একর জমির আমন থুরধান খেয়ে ও পায়ে পিসিয়ে দুমড়ে-মুচড়ে একাকার করে ফেলে। বেশ কিছু বসতবাড়ী ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। বন্য হাতির এ তান্ডব লিলায় বর্তমানে সীমান্তবাসীরা জীবণের ঝুঁকি নিয়ে আতংকের মাঝে দিনাতিপাত করছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সেলিম রেজা মৃত হাতি উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।