মেইন ম্যেনু

ঝিনাইদহে পুরোহিত হত্যায় শিবির নেতার স্বীকারোক্তি : এসপি

photo-1466528264ঝিনাইদহে পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলী হত্যায় ছাত্রশিবিরের নেতা এনামুল হক আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত পোনে ৮টার দিকে পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আলতাফ হোসেন নিজ কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

পুলিশ সুপার জানান, ছাত্রশিবির কেন্দ্রীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে পুরোহিত আনন্দ গোপালকে হত্যা করেছেন এনামুল হক।

ঝিনাইদহ সদর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রশিবিরের সম্পাদক এনামুল হককে সোমবার রাত ২টার দিকে ঢাকার গাবতলী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।এনামুল হকের বাড়ি সদর উপজেলার আড়মুখ কঠিপাড়া গ্রামে। তিনি ফুরিদপুরের রাজেন্দ্র কলেজ থেকে এ বছর ইসলামের ইতিহাস বিষয়ে অনার্স পরীক্ষা দিয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে ঝিনাইদহ অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম বেগম ফাহমিদা জাহাঙ্গীরের আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন এনামুল।

এসপি বলেন, পুরোহিত হত্যার ঘটনায় সাতজন অংশ নেয়। এনামুল তাদের অন্যতম।

মো. আলতাফ হোসেন জানান, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সমিরগাজি ও কালীগঞ্জের ডা. আবদুর রাজ্জাক হত্যার সঙ্গে ছাত্রশিবির জড়িত, এই জবানবন্দি দেওয়ার সময় এনামুল পুরোহিত হত্যার কথা স্বীকার করেন।

এসব ঘটনায় জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস ) জড়িত কি না জানতে চাইলে এসপি আলতাফ বলেন, আইএস এসব হত্যার সঙ্গে জড়িত নয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আজাবাহার আলী শেখ, সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) গোপীনাথ কানজি লাল, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান।

গত ৭ জুন ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কোরতিপাড়ার পুরোহিত আনন্দ গোপালকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পরের দিন নিহতের বড় ছেলে অরবিন্দ গাঙ্গুলী বাদী হয়ে সদর থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের নামে মামলা করেন।